ব্রিটিশ হয়েও অলিম্পিক ফুটবলে কানাডার সমর্থক জেমি ডে

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:২৫ পিএম, ২৯ জুলাই ২০২১

টোকিও অলিম্পিক পুরুষদের ফুটবলে গ্রেট ব্রিটেন নেই। নারী ফুটবলে আছে। ব্রিটেন এরইমধ্যে গ্রুপপর্ব টপকে কোয়ার্টার ফাইনালেও উঠে গেছে। বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের ইংলিশ কোচ জেমি ডে তার দেশের পাশপাশি অলিম্পিক ফুটবলে কানাডার মেয়েদেরও পক্ষ নিয়েছেন। কিন্তু কেন?

জেমির ছোট ভাই অ্যাডাম ডে থাকেন কানাডায়। দেশটির প্রফেশনাল ফুটবল ক্লাব ভ্যানকুভার হোয়াইটক্যাপস এফসির অনূর্ধ্ব-২১ দলের কোচ ছিলেন। এখন কানাডা নারী ফুটবল দলের কোচিং স্টাফের সদস্য। ভাইয়ের কারণেই জেমি অলিম্পিক নারী ফুটবলে ব্রিটেনের পাশাপাশি কানাডারও সমর্থক।

‘আমরা দুই ভাই। অ্যাডাম ছোট। সে কানাডায় থাকে। অলিম্পিকের কিছুদিন আগে কানাডা নারী ফুটবল দলের কোচিং স্টাফে যোগ দিয়েছে। আমার ভালো লাগছে- ভাই অলিম্পিক ফুটবলের কোচ, আমি এশিয়ান অলিম্পিকের (এশিয়ান গেমস) কোচ ছিলাম’- বলছিলেন জেমি ডে। জেমির অধীনে বাংলাদেশ এশিয়ান গেমস ফুটবলে প্রথমবারের মতো দ্বিতীয় পর্বে খেলেছিল।

টোকিও অলিম্পিকে নারী ফুটবলে ব্রিটেন ও কানাডা একই গ্রুপে ছিল। দুই দলের খেলা ড্র হয়েছে ১-১ গোলে। ব্রিটেন ‘ই’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন ও কানাডা রানার্সআপ হয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে।

শুক্রবার গেমস নারী ফুটবলের প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালেই মাঠে নামছে কানাডা। প্রতিপক্ষ শক্তিশালী ব্রাজিল। ‘গেমসে ব্রিটেন ও কানাডার ম্যাচগুলো দেখেছি। কানাডা ভালো খেলছে। ব্রাজিলের বিপক্ষে তাদেন জন্য ম্যাচটা কঠিন হবে। তারপরও আশা করি, কানাডা জিতেও যেতে পারে’-বলছিলেন জেমি ডে।

সর্বশেষ দুটি অলিম্পিকেই কানাডার মেয়েরা ব্রোঞ্জ পেয়েছেন। রিও অলিম্পিকে তো দেশটি ব্রোঞ্জ পেয়েছে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে স্বাগতিক ব্রাজিলকে ২-১ গোলে হারিয়ে।

আরআই/আইএইচএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]