গোল করে দল জিতিয়ে শুনলেন বাবার মৃত্যুসংবাদ

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৪৩ এএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের চলতি আসরে গ্রুপপর্বের প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে সবচেয়ে বড় জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। আরবি লাইপজিগের বিপক্ষে ম্যাচটি তারা জিতেছে ৬-৩ গোলের ব্যবধানে। যেখানে একটি গোল ছিলো দলের ডাচ ডিফেন্ডার নাথাক আকের।

গোলবন্যার ম্যাচে ১৬তম মিনিটে গোলটি করেন আকে। ইউরোপিয়ান শ্রেষ্ঠত্বের প্রতিযোগিতায় এটিই তার প্রথম গোল। নিজের প্রথম গোল, দলের জয়- সবমিলিয়ে হাসিখুশিই মাঠ ছেড়েছিলেন ২৬ বছর বয়সী এ ডিফেন্ডার।

কিন্তু ম্যাচ শেষে ব্যক্তিগত এক অপূরণীয় ক্ষতির খবরই শুনতে হয়েছে তাকে। চ্যাম্পিয়নস লিগে আকের প্রথম গোলের পরপরই মারা গেছেন তার বাবা ময়েজ আকে। দীর্ঘদিন ধরে ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াইয়ের পর ছেলের প্রথম গোলের পরই মারা গেলেন বাবা ময়েজ।

খেলার মধ্যে থাকায় ম্যাচ চলাকালীন সময়ে এটি জানানো হয়নি এ ডাচ ডিফেন্ডারকে। ম্যাচ শেষে তাকে জানানো হয় মর্মান্তিক খবরটি। নিজের ক্যারিয়ারের প্রথম চ্যাম্পিয়নস লিগ গোলটি বাবাকেই উৎসর্গ করেছেন আকে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে নাথান আকে লিখেছেন, ‘কঠিন সময়ের পর গতকাল (বুধবার) চ্যাম্পিয়নস লিগে আমার প্রথম গোল করেছি। এর কয়েক মিনিট পরই তিনি শান্তিতে মারা যান। এ সময় আমার মা ও ভাই বাবার পাশেই ছিল।’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘গত কয়েক সপ্তাহ আমার জীবনের সবচেয়ে কঠিন সময় কেটেছে। আমার বাবা খুব অসুস্থ ছিলেন এবং আর কোনো চিকিৎসা সম্ভব ছিল না। আমার বাগদত্তা, পরিবার এবং বন্ধুদের পাশে পেয়ে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি।’

‘আমি জানি, আপনি সবসময় আমার সঙ্গে আছেন। সবসময় আমার হৃদয়ে থাকবেন এবং এই গোলটি আপনার জন্য ছিল, বাবা।’

গতবছরের আগস্টে বর্নমাউথ ক্লাব থেজে ৪১ মিলিয়ন ইউরো ট্রান্সফার ফি’তে ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দিয়েছেন আকে। এখনও পর্যন্ত ক্লাবের হয়ে ১৬ ম্যাচ খেলেছেন তিনি, করেছেন দুইটি গোল। ইনজুরির কারণে গত মৌসুমের বেশিরভাগ সময় বাইরেই থাকতে হয়েছিল তাকে।

এসএএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]