দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর জয়, স্বস্তি ফিরলো বার্সেলোনায়

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:১৬ পিএম, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

সেই যে গেটাফের বিপক্ষে প্রায় মাস খানেক আগে সর্বশেষ জয় পেয়েছিল বার্সেলোনা। এরপর মধ্যে সেভিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ স্থগিত করা হয়, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বায়ার্নের কাছে ৩-০ গোলে হার দিয়ে শুরু। পরের ম্যাচগুলোতে জয়ই পাচ্ছিল না স্প্যানিশ লা লিগার জায়ান্টরা। গ্রানাডার সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করার পর ক্যাডিজের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে তারা।

যার ফলে পয়েন্ট টেবিলের ৯ম স্থানে নেমে যেতে হয় পিকে-বুস্কেটসের দলকে। এরই মধ্যে এমন বাজে পারফরম্যান্সের কারণে কোচ রোনাল্ড কোম্যানের চাকরি যায় যায় অবস্থা। যে কোনো সময় বরখাস্ত করা হতে পারে তাকে, এমন সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছিল। বার্সা দলটির অভ্যন্তরেও অস্বস্তি বিরাজ করছিল। কী করবে, কেউ যেন দিশা খুঁজে পাচ্ছিল না।

এমন সময়ে আজ লেভান্তের বিপক্ষে মাঠে নেমে ৩-০ গোলে জয় পেয়েছে বার্সেলোনা। এই একটি জয়ের জন্য যেন কতকাল অপেক্ষা করছিল তারা। কারণ, এই একটি জয়ে স্বস্তির সুবাতাস বয়ে যাচ্ছে এখন বার্সা শিবিরের ওপর দিয়ে।

মেসি বার্সা ছাড়ার পর তার ১০ নম্বর জার্সি অবশেষে মাঠে নামলো আজ। মেসির জার্সি নাম্বার দেয়া হয়েছে ‘ছোট মেসি’ নামে পরিচিত আনসু ফাতিকে। ১০ মাস ইনজুরিতে ভোগার পর অবশেষে মাঠে নামলেন ফাতি। তবে শেষ ১০ মিনিটের জন্য মাঠে নামানো হয় তাকে। তাতেও একটি গোল উপহার দিয়েছেন তিনি।

Ansu fati

ম্যাচের শুরুতেই গোল পেয়ে যায় বার্সেলোনা। ৬ মিনিটেই বক্সের মধ্যে মেমপিস ডিপেইকে হার্ড ট্যাকল করে বসেন লেভান্তের নেমানজা রাদোজা। রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজালে স্পট কিক নেন ডিপেই নিজেই। তার শট জড়িয়ে যায় লেভান্তের জালে।

এরপর ম্যাচের ১৪ মিনিটে আবারও গোল। এবার গোল দেন লুক ডি জং। ট্রান্সফার মৌসুমের শেষ মুহূর্তে লুক ডি জংকে সেভিয়া থেকে দলে নেয় বার্সা। এরপর বার্সার জার্সিতে এটা তার প্রথম গোল।

প্রথমার্ধ শেষ হয় ২-০ ব্যবধানে। দ্বিতীয়ার্ধও প্রায় একই ব্যবধানে শেষ হতে যাচ্ছিল। ৮১তম মিনিটে আনসু ফাতিকে মাঠে নামান কোচ কোম্যান। ইনজুরি সময়ের প্রথম মিনিটেই বাম পাশ থেকে ডান পায়ের দারুণ এক শটে লেভান্তের জালে বল জড়িয়ে দেন ফাতি।

ম্যাচ শেষে ফাতি বলেন, ‘এভাবে ফিরতে পারবো, তা বিশ্বাসই হচ্ছে না। মনে হচ্ছিল, এটা বুঝি আমার অভিষেক। গোল করার পর ফেরাটা স্মরণীয় হয়ে থাকলো।’

আইএইচএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]