সম্ভাবনা শেষ হয়ে যায়নি বসুন্ধরা কিংসের

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:২০ এএম, ২৩ মে ২০২২

মোহনবাগানের কাছে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত হওয়ার পর এএফসি কাপের ‘ডি’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে আঞ্চলিক সেমিফাইনালে ওঠার সম্ভাবনা বলতে গেলে শেষ হয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশের ক্লাব বসুন্ধরা কিংসের।

তবে শনিবারই রাতের ম্যাচে গোকুলাম কেরালাকে নাটকীয়ভাবে ১-০ গোলে হারিয়ে গ্রুপ লড়াইটা দারুণ জমিয়ে দিয়েছে মালদ্বীপের মাজিয়া স্পোর্টস অ্যান্ড রিক্রিয়েশন ক্লাব।

দুই ম্যাচ শেষে চার ক্লাবের ঝুলিতেই ৩ পয়েন্ট করে। শেষ দুই ম্যাচের ফল যে কোন দলের জন্যই হতে উঠতে পারে আশীর্বাদ। তবে একেক দলের জন্য সমীকরণটা একেক রকম।

এই যেমন বসুন্ধরা কিংস যদি ভারতের গোকুলাম কেরালাকে শেষ ম্যাচে হারাতে পারে এবং মোহনবাগান ও মাজিয়ার ম্যাচটি ড্র হয় তাহলে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন দলটির জন্য খুলে যাবে পরের রাউন্ডে ওঠার রাস্তা।

যদি মোহনবাগান জিতে যায় এবং কিংসও হারিয়ে দেয় গোকুলামকে তখন দুই দলের পয়েন্ট সমান হবে এবং মোহনবাগানই উঠে যাবে পরের রাউন্ডে। কারণ হেড টু হেড লড়াইয়ে জয়ী দলটি তারা।

যদি কিংস জিতে এবং অন্য ম্যাচে মোহনবাগান হেরে যায়? সেক্ষেত্রে কিংস ও মাজিয়ার পয়েন্ট হবে ৬ করে। হেড টু হেড লড়াইয়ে এগিয়ে থাকার সুবাদে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে পরের রাউন্ডে উঠে যাবে বাংলাদেশের ক্লাবটি।

দুটি ম্যাচই যদি ড্র হয় তাহলে কপাল খুলে যাবে মোহনবাগানের। যদি কিংস হেরে যায় এবং মোহনবাগানও হেরে যায় তাহলে মালদ্বীপের ক্লাবটি উঠবে পরের রাউন্ডে। কিংস যদি হেরে যায় এবং মোহনবাগান ড্র করে তখন পরের রাউন্ডের টিকিট পাবে গোকুলাম কেরালা।

ফুটবলে যে কোনো ম্যাচে যে কোনো কিছু হতে পারে। মোহনবাগানের জালে ৪ গোল দেওয়া গোকুলাম কেরালা যেমন হেরে গেছে মাজিয়ার বিপক্ষে। মাজিয়া যে মোহনবাগানকে হারাতে বা রুখে দিতে পারবে না, সে নিশ্চয়তা কে দেবে? তাই শেষ ম্যাচে চার দলই খেলতে নামবে সম্ভাবনার দুয়ারে দাঁড়িয়ে।

আরআই/এমএমআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]