ভারত মিশনের পর এবার চোখ বাহরাইনে

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:৪১ পিএম, ০৬ আগস্ট ২০২২

সাফ অনূর্ধ্ব-২০ চ্যাম্পিয়নশিপের লিগ পর্যায়ে যে ছন্দটা ছিল তাতে বাংলাদেশের যুবাদের নিয়ে আশাবাদী ছিলেন সবাই। ভারতের মাটিতে তাদেরকেই হারিয়ে ট্রফি উঁচিয়ে ধরবে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা সে - প্রত্যাশা ছিল অনেকেরই।

কিন্তু শুরুর মতো শেষটা হলো না। ফাইনালে ৯০ মিনিটে দুর্দান্ত লড়াই করে রণেভঙ্গ দিয়েছেন বাংলাদেশের ফুটবলাররা। যে কারণে অতিরিক্ত সময়ে ফাইনালটাকে একপেশে বানিয়ে ফেলেছিল ভারত।

২-২ থেকে ৩-২ ব্যবধানে হারলে তাকে দুর্ভাগ্য বলে মেনে নেওয়া যেতো। কিন্তু অতিরিক্ত সময়ে ম্যাচের যে চেহারা দাঁড়িয়েছিল সেটা চরম দুর্ভাগ্য বলা ছাড়া উপায় নেই। ৯০ মিনিটের ২-২ স্কোর ৯৯ মিনিটে ৫-২ । ভারতীয় তরুনদের ৯ মিনিটের ঝড়ে লন্ডভন্ড বাংলাদেশের রক্ষণ। টপাটপ গোল করে ঘরের মাঠের টুর্নামেন্টটাকে নিজেদের করে নিলো স্বাগতিক যুবারা। আসলে বাংলাদেশের তরুণরা অতিরিক্ত সময়ের চাপটা নিতে পারেননি।

রাতে বাংলাদেশ দল দেশে ফিরছে। তবে ফিরেও তাদের বিশ্রাম নেওয়ার সুযোগ নেই। এক মাস পর যে মাঠে নামতে হবে এর চেয়েও বড় টুর্নামেন্টে-দক্ষিণ এশিয়া থেকে এশিয়ার লড়াইয়ে। আগামী ১০ সেপ্টেম্বর বাহরাইনে শুরু হবে এএফসি অনূর্ধ্ব-২০ চ্যাম্পিয়নশিপ।

এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ খেলবে ‌'বি' গ্রুপে। স্বাগতিক বাহরাইন ছাড়াও গ্রুপে আছে কাতারের মতো শক্তিশালী দল। অন্য দুই দল দক্ষিণ এশিয়ার নেপাল ও ভুটান। নেপালের বিপক্ষে সাফের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র করেছিল বাংলাদেশ।

সাফের মতো এই টুর্নামেন্টেও দল নিয়ে যাবে বাফুফের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর পল স্মলি। তবে তার জন্য ভাল খবর হলো প্রিমিয়ার লিগ চলার কারণে তিনি ভারতের টুর্নামেন্টের জন্য পাননি কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। মোহামেডান ছাড়েনি শেখ মোরসালিনকে, বসুন্ধরা কিংস ছাড়েনি ইয়াছিন আরাফাত ও রিমন হোসেনকে। পল স্মলি এবার এই খেলোয়াড়দের নিয়েই আরো শক্তিশালী দল গঠণ করতে পারবেন।

এএফসি অনূর্ধ্ব-২০ চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচ খেলবে ১০ সেপ্টেম্বর স্বাগতিক বাহরাইনের বিপক্ষে। ১২ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ দ্বিতীয় ম্যাচ খেলবে ভুটানের বিপক্ষে, ১৬ সেপ্টেম্বর তৃতীয় ম্যাচ খেলবে কাতারের বিপক্ষে এবং ১৮ সেপ্টেম্বর শেষ ম্যাচ খেলবে নেপালের বিপক্ষে।

আরআই/আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]