রিয়াল এবং বেনজেমাকে গোনায়ও ধরছেন না লেওয়ানডস্কি

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৩৬ পিএম, ০৬ আগস্ট ২০২২

বার্সেলোনার সঙ্গে তার চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে আরও আগে। গতমাসেই বায়ার্ন মিউনিখের সঙ্গে সম্পর্ক চুকিয়ে বার্সায় যোগ দেন লেওয়ানডস্কি। এরপর বার্সার জার্সিতে যুক্তরাষ্ট্রে প্রাক প্রস্তুতিমূলক ম্যাচও খেলে ফেলেছেন তিনি।

অবশেষে পোল্যান্ডের এই তারকাকে আনুষ্ঠানিকভাবে দর্শকদের সামনে পরিচয় করিয়ে দেয়া হলো বার্সা ফুটবলার হিসেবে। মৌসুম শুরুর আগ মুহূর্তে ন্যু-ক্যাম্পে বার্সা সভাপতি হুয়ান লাপোর্তা পরিচয় করিয়ে দেন পোলিশ তারকাকে।

বার্সার জার্সিতে আনুষ্ঠানিকভাবে অভিষেকের আগেই সুপার ক্ল্যাসিকোয় রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হয়ে গেছেন লেওয়ানডস্কি। তবে, ওই ম্যাচে নাকি তিনি রিয়াল মাদ্রিদ নিয়ে মোটেও ভাবেননি। এমনকি প্রতিপক্ষ দলে যে করিম বেনজেমাও রয়েছেন, সে সম্পর্কেও তার তেমন চিন্তা-ভাবনা ছিল না।

প্রেজেন্টেশনের সময় দেয়া বক্তব্যে লেওয়ানডস্কি বলেন, ‘আমি সব সময়ই রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে খেলতে প্রস্তুত। আমি জানি তাদের বিপক্ষে কিভাবে খেলতে হয়। গত মৌসুমটা ছিল তাদের জন্য খুবই সাফল্যমণ্ডিত। এখন আমরা চলে এসেছিল তাদের হারাতে। আমরা জানি, কাজটা হয়তো কঠিন, তবে এটা ফুটবল (যে কোনো কিছুই সম্ভব)।’

শুধু রিয়ালের বিপক্ষে ম্যাচ বলেই নয়, নিজেদের সব সময় প্রস্তুত রাখতে চান লেওয়ানডস্কি। তিনি বলেন, ‘শুধু রিয়াল মাদ্রিদই নয়, আমাদের সব সময়ই প্রস্তুত থাকতে হবে। কারণ, এখানে বেশ কিছু ভালোমানের ক্লাব রয়েছে। আপনাকে সব সময়ই নিজের সেরাটা দিয়ে খেলতে হবে। আমরা জানি, প্রতিটি ম্যাচই এখানে জিততে হবে। এটা অবশ্যই আমাদের জন্য একটা চ্যালেঞ্জ।’

রিয়াল মাদ্রিদ কিংবা করিম বেনজেমাকে নিয়ে কোনো চিন্তাই করছেন না লেওয়ানডস্কি। তিনি বলেন, ‘আমি রিয়াল মাদ্রিদ এবং বেনজেমাকে নিয়ে কোনো চিন্তাই করছি না। অবশ্যই সে (বেনজেমা) একজন ভালোমানের স্ট্রাইকার। যিনি লা লিগায় খেলছেন অনেক বছর ধরে। আমার জন্য গুরুত্বপূর্ণ হলো, আমি রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে খেলবো, তার বিপক্ষে নয়।’

বার্সা সমর্থকদের আস্বস্ত করে লেওয়ানডস্কি বলে দিয়েছেন, ‘আমি এখানে এসেছি শিরোপা জিততে। আমার সমস্ত ধ্যান-জ্ঞান, সব কিছুই বার্সাকে কিভাবে জেতানো যায় সে দিকেই। কোচ জাভি হার্নান্দেজের এই দলটি অবশ্যই শিরোপা জয়ের দাবি রাখে।’

৩৩ বছর বয়স হয়ে গেছে লেওয়ানডস্কির। তবে এটাকে খুব গুরুত্ব দিয়ে দেখতে চান না তিনি। পোলিশ স্ট্রাইকার বলেন, ‘বয়স কোনো ব্যাপার না। এটা শুধুমাত্র একটি সংখ্যা। শারীরিকভাবে আমি নিজেকে সেরা মনে করছি এবং আগামী আরও কয়েক বছর টপ লেভেলে খেলার সামর্থ্য রাখি।’

আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]