নেইমার-এমবাপের হাতাহাতি, অশান্ত পিএসজি শিবির

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৪৬ এএম, ১৬ আগস্ট ২০২২

মাঠে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে তাদের লড়তে হয়, কিন্তু সম্পর্কটা যদি এমন সাপে-নেউলে হয়ে যায়, তবে একসঙ্গে খেলবেন কী করে? নেইমার আর কিলিয়ান এমবাপের মধ্যে নাকি এক দফা হাতাহাতিও হয়ে গেছে।

‘স্পোর্টস বাইবেল’-এর প্রতিবেদন, শনিবার রাতে মপলিয়েরের বিপক্ষে পিএসজি বড় জয় পেলেও পেনাল্টিকে কেন্দ্র করে ড্রেসিংরুমে গিয়ে ‘মারামারি’ বাঁধিয়েছেন নেইমার-এমবাপে। অবস্থা এমনই দাঁড়িয়েছিল, দুজনকে আলাদা করতে বেশ বেগই পেতে হয়েছে সতীর্থদের।

মৌসুমের প্রথম ম্যাচে জোড়া গোল করেন নেইমার। কিন্তু ঝামেলাটা বাঁধে পেনাল্টি নেওয়া নিয়ে। দুই দল যখন ০-০ সমতায়, তখন একটি পেনাল্টি পেয়েছিল পিএসজি। এমবাপে সেই পেনাল্টি নেন এবং মিস করেন।

দ্বিতীয়ার্ধে লিগ ওয়ান চ্যাম্পিয়নরা আরেকটি পেনাল্টি পায়। এবারও এমবাপে পেনাল্টি নিতে চাইলে তাকে দেননি নেইমার। নিজেই জোর করে পেনাল্টি নেন এবং গোল করেন।

স্বভাবতই এমবাপে এই ঘটনায় খুশি হতে পারেননি। ম্যাচে তাকে অনেক সময়ই দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। বল সামনে না আসলে দৌড়চ্ছিলেন না ফরাসি তারকা।

এরপর ড্রেসিংরুমে এ নিয়ে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে হাতাহাতি লেগে যায় নেইমার-এমবাপের। প্রতিবেদন অনুযায়ী, দুজন চিৎকার করে একে অপরকে গালাগাল করছিলেন এবং মাথায় মাথায় ঠুকোঠুকি লেগে যান। সতীর্থরা এসে তাদের আলাদা করেন।

তবে তখনও ঝগড়া থামেনি। দুজন চিৎকার করতে থাকেন এবং আশেপাশে থাকা কিছু জিনিস ছুড়েও ফেলেন। ড্রেসিংরুমের সেই লড়াই এরপর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও ছড়িয়ে পড়ে।

এমবাপেকে কি ভবিষ্যতে পেনাল্টি দেওয়া উচিত হবে কিনা, এমন দুটি পোস্টে লাইক দেন নেইমার। কোচ ক্রিস্টোফার গাল্টিয়েরও সে কথা স্বীকার করেছেন। বোঝাই যাচ্ছে, কতটা অশান্ত হয়ে উঠেছে পিএসজি শিবির।

এমএমআর/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।