সুপার লেওয়ানডস্কিতে শীর্ষে বার্সেলোনা

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৩১ এএম, ০২ অক্টোবর ২০২২

বায়ার্ন মিউনিখে থাকতেই তিনি ছিলেন গোল মেশিন। বার্সায় আসার পর সেই মেশিনের ঔজ্জ্বলতা যেন আরও বেড়ে গেছে কয়েকগুণ। বার্সার জার্সিতে একের পর এক গোল করে যাচ্ছেন তিনি। শনিবার রাতেও গোল করলেন। মায়োরকার বিপক্ষে তার একমাত্র গোলেই স্প্যানিশ লা লিগার শীর্ষে উঠে গেছে বার্সা।

এই জয়ের ফলে রিয়াল মাদ্রিদকে পেছনে ফেলে শীর্ষে উঠে এলো বার্সেলোনা। ৭ ম্যাচে বার্সার পয়েন্ট ১৯। ১ পয়েন্ট পিছিয়ে রিয়াল। ৬ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ১৮। ওসাসুনার বিপক্ষে আজ জিততে পারলে আবারও শীর্ষে চলে যাবে রিয়াল।

মৌসুমে এ নিয়ে ৯ম গোল করলেন রবার্ট লেওয়াডনস্কি। স্প্যানিশ লা লিগায় এটা ৮ম। ১৯৯৭ সালে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের হয়ে ক্রিশ্চিয়ান ভিয়েরি প্রথম সাত ম্যাচে করেছিলেন ৮ গোল। তার প্রায় ২৫ বছর পর ভিয়েরির রেকর্ড স্পর্শ করলেন বার্সার পোলিশ স্ট্রাইকার।

শুধু তাই নয়, রিয়াল মাদ্রিদের রুড ফন নিস্টলরয়ের একটি রেকর্ডও স্পর্শ করে ফেলেছেন তিনি। লা লিগায় টানা ৬ সপ্তাহে গোল পেলেন রবার্ট। ২০০৬-০৭ মৌসুমে নিস্টলরয় রিয়ালের হয়ে এই রেকর্ড গড়েছিলেন।

তবে লেওয়ানডস্কির জয়সূচক গোলের চেয়ে বার্সার জয়ে অনবদ্য অবদান রেখেছেন গোলরক্ষক মার্ক অ্যান্ডার টের স্টেগান। অন্তত নিশ্চিত তিনটি গোল থেকে দলকে বাঁচিয়ে দেন তিনি। জাউমি কস্তা, অ্যান্তোনিও সানচেজ এবং লি কাং ইনের দুর্দান্ত তিনটি শট ফিরিয়ে দেন তিনি।

বার্সেলোনা গোলের জন্য ক্লিয়ার সুযোগ তৈরি করতে পেরেছে খুব কম। যাও এক-দুটা তৈরি করেছে, তাতে নিজের ক্যারিশমা দেখিয়ে একটি গোল আদায় করে নেন লেওয়ানডস্কি। ম্যাচের ২০তম মিনিটে মায়োরকার ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে অসাধারণ দক্ষতায় গোলটি করেন তিনি।

ম্যাচ শেষে কোচ জাভি বলেন, ‘লেওয়ানডস্কি এবং টের স্টেগান সম্পর্কে কিছু বলা যেন তাদেরকে কম মূল্যায়ন করা হয়ে যাবে। তারা এসবের চেয়েও অনেক বড়। তবেম এটা নিশ্চিত যে, এই ম্যাচে এই দু’জনই স্পষ্ট পার্থক্য তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন। মার্ক (গোলরক্ষক) রয়েছেন অসাধারণ ফর্মে। আর রবার্ট (লেওয়ানডস্কি) হচ্ছেন একজন বিশ্বমানের গোল স্কোরার’

আইএইচএস/

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।