হারের পরই কঠোর আর্জেন্টিনা কোচ, ঠা ঠা রোদে অনুশীলন, ছিলেন না মেসি

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:১৫ এএম, ২৪ নভেম্বর ২০২২

সৌদি আরবের কাছে অপ্রত্যাশিত হারের পর আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্নে বড় ধরনের ধাক্কা লেগে গেছে। পরের দুই ম্যাচ জিততে না পারলে নকআইটে ওঠাটাই কষ্ট হয়ে যাবে লিওনেল মেসিদের। অর্থ্যাৎ, পরের সবগুলো ম্যাচই আর্জেন্টিনার জন্য নকআউট। সুতরাং, কোচ লিওনেল স্কালোনিকে কঠোর হওয়া ছাড়া তো উপায়ও নেই।

আবার সৌদির কাছে হারের কারণে মুষড়েও পড়েছে পুরো আর্জেন্টিনা শিবির। দলের মধ্যে এক ধরনের থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে। প্রথম ম্যাচে সৌদির মত এমন দুর্বল প্রতিপক্ষের কাছে এভাবে হারতে হবে- এটা কেউ মেনেই নিতে পারছেন না।

তবে সব বিমর্ষতা কাটিয়ে আবারও মাঠে নামতে হবে পূর্ণ শক্তিতে। এ কারণে বুধবার সকাল ১১টায় দেখা গেলো ঠা ঠা রোদের মধ্যে ফুটবলারদের অনুশীলনে নামিয়ে দিলেন কোচ স্কালোনি। মূলতঃ দলের অনুশীলন ছিল বিকালে। কিন্তু আর্জেন্টিনার স্কালোনি হঠাৎ করেই তা এগিয়ে আনেন সকালে।

মরুভূমির ঠা ঠা রোদের মধ্যেই দলকে অনুশীলন করার নির্দেশ দিলেন। কাতারের গরমে যাতে ফুটবলাররা ম্যাচের সময় কাহিল না হয়ে পড়েন, সে জন্যেই এই ব্যবস্থা করলেন তিনি। স্বাভাবিকভাবেই ফুটবলারদের কালঘাম ছুটে যায় অনুশীলন করতে গিয়ে।

তবে এই অনুশীলনে দেখা যায়নি লিওনেল মেসিকে। আর্জেন্টিনার অধিনায়ক সৌদি আরবের বিপক্ষে ম্যাচের পর চরম হতাশায় ভুগছেন। যদিও সৌদির বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে যারা খেলেছেন তাদের কেউই এদিন অনুশীলন করেননি।

হুয়ান ফয়েথ, লিসান্দ্রো মার্টিনেজ, মার্কোস আকুনা, এনজো ফার্নান্দেস, পাওলো দিবালাসহ ১৩ জন ফুটবলার বুধবার অনুশীলন করেন। গোলরক্ষকদের কড়া অনুশীলনও চলে। ১৩ জন ফুটবলার একদিকে এবং গোলরক্ষকরা অন্যদিকে অনুশীলন করেন।

আর্জেন্টিনার সংবাদমাধ্যমের খবর, বুধবার বিকেলে কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ে মেসিদের শিবিরে আসেন তাদের স্ত্রী-বান্ধবীরা। এই প্রথম পরিবারের সঙ্গে দেখা করার সুযোগ পাচ্ছেন মেসিরা। প্রথম ম্যাচের কিছুক্ষণ আগেই ফুটবলারদের পরিবার কাতার এসে পৌঁছায়। তাই এতদিন দেখা করার সুযোগ হয়নি। পরিবারের সঙ্গে ফুটবলারদের সাক্ষাতের এই পরিকল্পনা অনেক আগে থেকেই করা ছিল।

আইএইচএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।