মাত্র ২৩ বছর বয়সেই বিশ্বকাপে ৯ গোল করলেন এমবাপে

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:২৯ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২

ফরাসি বিপ্লবের শিশু বলা হয় নেপোলিয়ন বোনাপার্টকে। মাত্র ৩৫ বছর বয়সেই পরাক্রমশালী ফ্রান্সের সম্রাট হয়েছিলেন তিনি। এমবাপের অবশ্য ৩৫ বছর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়নি। মাত্র ২৩ বছর বয়সেই যেন ফ্রান্স তথা সারা বিশ্বের সম্রাট বনে গেছেন এই ফ্রেঞ্চ তারকা ফুটবলার।

৩২ দেশের বিশ্বকাপে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়দের টপকে যেন নিজেকে বারবারই জানান দিচ্ছেন কেন তাকে ধরা হয় বর্তমানের সেরা তারকা হিসেবে।

বয়সটা এখনো ২৪ হয়নি। এই বয়সে যেমন তরুণরা টগবগ করতে থাকে সাফল্যের নেশায় এমবাপেও যেন তেমনি। ২০১৮ বিশ্বকাপে ফ্রান্সকে ২০ বছর পর পাইয়ে দেন দ্বিতীয় বিশ্বকাপ শিরোপার স্বাদ। সেই বিশ্বকাপে ৪ গোল করে ফ্রান্সকে বিশ্বকাপ জিততে সহায়তা করেন।

২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে এমবাপে যেখান থেকে শেষ করেছিলেন ২০২২ বিশ্বকাপ যেন সেখান থেকেই শুরু করলেন। বিশ্বকাপে ৪ ম্যাচ খেলে ইতোমধ্যে করে ফেলেছেন ৫ গোল। গ্রুপ পর্বে ৩ গোল করার পাশাপাশি বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে পোল্যান্ডের মত শক্তিশালী ইউরোপিয়ান দলের বিপক্ষে জোড়া গোল করে বসলেন। গোল করার থেকেও তার ফিনিশিংয়ের যে নিখুঁত দক্ষতা সেটিই মন্ত্রমুগ্ধ করছে সারা বিশ্বকাপে।

২৩ বছর ৩৪৯ দিন বয়সে কোন খেলোয়াড়ের এমন দারুণ নৈপুণ্য বিশ্বকাপের মত মঞ্চে এর আগে দেখিনি কেউই। এর আগে পর্তুগিজ কিংবদন্তি ইউসেবিও বিশ্বকাপে ৯ গোল করেছিলেন ২৪ বছর ১৮২ দিন বয়সে। বিশ্বকাপে মাত্র ১১ ম্যাচ খেলে ৯ গোল করলেন তিনি।

বিশ্বকাপে ফ্রান্সের হয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতা ফোন্টেইনের ১৩ গোলের থেকে মাত্র ৪ গোল দূরে রয়েছেন তিনি। এমবাপে যেভাবে আগাচ্ছেন তাতে বিশ্বকাপ ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা জার্মানির মিরোস্লাভ কোসার ১৬ গোলে রেকর্ডও হুমকির মুখে পড়তে যাচ্ছে তা বলাই বাহুল্য।

আরআর/এএএইচ

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।