বাণিজ্যিক সম্পর্ক জোরদার করতে সিঙ্গাপুরের সঙ্গে তিন সমঝোতা


প্রকাশিত: ০২:০৪ পিএম, ১০ জুলাই ২০১৭
বাণিজ্যিক সম্পর্ক জোরদার করতে সিঙ্গাপুরের সঙ্গে তিন সমঝোতা

বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুরের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক জোরদার করতে তিনটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হয়েছে। সোমবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিআইডিএ), সিঙ্গাপুর বিজনেস ফেডারেশন, বাংলাদেশ বিজনেস চেম্বার অব সিঙ্গাপুর এবং ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) এসব সমঝোতা স্মারকে সই করে।

সমঝোতা স্মারক সই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী এম আমিনুল ইসলাম, সিঙ্গাপুর বিজনেস ফেডারেশনের চেয়ারম্যান এস এস টো, এফবিসিসিআই’র ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. মুনতাকিন আশরাফ প্রমুখ।

তিন সমঝোতা স্মারকের মধ্যে সিঙ্গাপুর বিজনেস ফেডারেশনের সঙ্গে একটিতে সই করে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ। অপর দুটির মধ্যে একটি এফবিসিসিআই ও সিঙ্গাপুর বিজনেস ফেডারেশন এবং অন্যটি এফবিসিসিআই ও বাংলাদেশ বিজনেস চেম্বার অব সিঙ্গাপুর-এর মধ্যে সই হয়। দুই দেশের বাণিজ্যিক সম্পর্ক উন্নয়নে এই সমঝোতা স্মারক তিনটি সই হলেও এরমধ্যে কী আছে সে বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি।

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, বিনিয়োগ উন্নয়ন ও সুরক্ষা, দ্বৈত ট্যাক্স বর্জনসহ বিভিন্ন চুক্তি এবং সমঝোতা স্মারক সইয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুরের মধ্যে অর্থনৈতিক, বিনিয়োগ, বাণিজ্যিক এবং কূটনৈতিক সম্পর্ক শক্তিশালী হয়েছে।

বাংলাদেশের উন্নয়ন একটি অলৌকিক ঘটনা উল্লেখ করে শিল্পমন্ত্রী বলেন, আমরা সম্প্রতি নিম্নমধ্য আয়ের দেশে উপনীত হয়েছি। শেষ দশকে বিশ্ব অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যেও আমাদের মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি ৬ শতাংশের ওপরে হয়েছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে জিডিপির প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৭ দশমিক ১১ শতাংশ। আর ২০১৬-১৭ অর্থবছরে তা আরও বেড়ে হয়েছে ৭ দশমিক ২৪ শতাংশ। বর্তমানে আমরা ৭ দশমিক ৪০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্যে কাজ করছি।

এমএএস/ওআর/এমএস