শ্যুটিংয়ে মিটমিট আলো হকিতে গন্ডগোল ভারোত্তোলনে কলঙ্ক

রফিকুল ইসলাম
রফিকুল ইসলাম রফিকুল ইসলাম , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:১১ এএম, ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮

কালের গর্ভে হারিয়ে যাচ্ছে আরেকটি বছর। আর একদিন পর দেয়ালের পুরনো ক্যালেন্ডারটি সরিয়ে জায়গা করে নেবে নতুন একটি। ২০১৯ সালকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুতি নিচ্ছে গোটাবিশ্ব। স্মৃতির খেরোখাতা থেকে ইতোমধ্যেই মানুষ মেলাতে শুরু করছে প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তির হিসাব।

সমাজের অন্যসব ক্ষেত্রের মতো ক্রীড়াঙ্গনেও চলছে সফলতা ও ব্যর্থতার চুলচেরা বিশ্লেষণ। বিদায়ী বছরে দেশে ও দেশের বাইরে ক্রীড়াঙ্গনের উল্লেখযোগ্য দিকগুলো নিয়ে ধারাবাহিক পর্যালোচনার আজকের পর্ব অন্যান্য খেলা।

বিদায়ী বছরের গোড়ার দিকে অস্ট্রেলিয়ার গোলকোস্টে বসেছিল কমনওয়েলথ গেমসের একুশতম আসর। বাংলাদেশ এ গেমসে অংশ নিয়ে ফিরেছে দুটি রৌপ্য পদক নিয়ে। দুটিই এসেছে শ্যুটিংয়ে। আবদুল্লাহ হেল বাকি রৌপ্য জিতেছেন ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে, শাকিল আহমেদ ৫০ মিটার পিস্তলে। সম্ভাবনাময় খেলা শ্যুটিংয়ের কল্যাণেই গেমসে পদকের তালিতায় নাম উঠেছিল লাল-সবুজের দেশের।

কিন্তু একটি পদকের রঙ বদলেও যেতে পারতো। বাকির পাওয়া রৌপ্য পদকটি হতো পারতো সোনালী। অল্পের জন্য স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে দেশের অভিজ্ঞ এ শ্যুটারের। শেষ শটে অস্ট্রেলিয়ার ড্যান স্যাম্পসন করেন ৯.৩ স্কোর। বাকি তখন ১০.১ স্কোর করতে পারলেই গেমসে বেজে উঠতো ‘আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালোবাসি' গানটি।

HOckey

শট নেয়ার আগেই বাকি জেনে গিয়েছিলেন তার লক্ষ্যটা কী? এই জেনে যাওয়াটাই ঘটিয়েছিল বিপত্তি। চাপ নিয়ে বসলেন দেশের অন্যতম সেরা এ শ্যুটার। স্নায়ুচাপ ঘিরে ধরলে যা হওয়ার হলো তাই। পারলেন না বাকি, শেষ শটে স্কোর করলেন ৯.৪। স্বর্ণ হয়ে থাকলো সোনার হরিণ। বাকিকে সন্তুষ্ট থাকতে হলো রৌপ্য নিয়ে।

স্বর্ণের লড়াইয়ে আরেক শ্যুটার শাকিল আহমেদ হেরে যান অস্ট্রেলিয়ার ড্যানিয়েল রেপাকোলির কাছে। গত এসএ গেমসে স্বর্ণ জেতা শাকিল ৫০ মিটার এয়ার পিস্তলে জিতলেন রৌপ্য। তারপরও এটা বিশাল প্রাপ্তি ছিল বাংলাদেশের। দীর্ঘ ২৮ বছর পর বাংলাদেশের ঝুলিতে এলো এই গেমসের পিস্তল ইভেন্টে পদক।

সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন নারী শ্যুটার উম্মে জাকিয়া সুলতানা। কিন্তু শেষটা ভালো হয়নি তার, মেয়েদের ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে চতুর্থ হন তিনি।

এ বছর আর্জেন্টিনায় অনুষ্ঠিত যুব অলিম্পিকে অংশ নিয়েছিলেন তরুণ শ্যুটার অর্ণব শাহরার লাদিফ। আগের বছর ডিসেম্বরে এশিয়ান শ্যুটিং চ্যাম্পিয়নশিপে রুপা জিতে যুব অলিম্পিকের টিকিট পেয়েছিলেন তিনি। তবে যুব অলিম্পিকে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। প্রতিযোগিতা শেষ করেছেন নবম হয়ে।

hasan

বছরের মাঝামাঝিতে ইন্দোনেশিয়ায় হওয়া এশিয়ান গেমসে শ্যুটাররা শূণ্য হাতে ফিরেছেন অন্যান্য সব খেলার ক্রীড়াবিদদের মতো। তবে কমনওয়েলথ গেমসে দুটি রৌপ্য এবং জাকিয়ার পদকের কাছাকাছি যাওয়াটা ভালো খবরই ছিল।

হকিতে এশিয়ান গেমসে লক্ষ্যপূরণ করেছে বাংলাদেশ। ইন্দোনেশিয়া থেকে ষষ্ঠ হয়ে ফিরেছে জিমি-চয়নরা। জাতীয় দলের ফলাফল আশানুরূপ হলেও ঘরোয়া হকির পরিবেশ ছিল হতাশার। প্রিমিয়ার লিগকে কেন্দ্র করে হয়েছে তুমুল গন্ডগোল। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচের ফলাফল ঝুলে ছিল কয়েক মাস। হকি আলোচনার শীর্ষে ছিল লিগের ঘটনাকে কেন্দ্র করেই।

সর্বশেষ প্রিমিয়ার লিগ হকিতে অংশ নেয়নি দেশের অন্যতম শক্তিশালী ক্লাব ঊষা ক্রীড়া চক্র। ফেডারেশনের নির্বাচনকে কেন্দ্র করেই খেলার বাইরে থাকে পুরোনো ঢাকার ক্লাবটি। প্রিমিয়ার না খেলার শাস্তি হিসেবে ক্লাবটিকে নামিয়ে দেয়া হয়েছে প্রথম বিভাগ লিগে।

ফলাফল ঝুলে থাকা প্রিমিয়ার লিগে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা দেয়া হয়েছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাববে। লিগের শেষ ম্যাচটি ছিল মোহামেডান-মেরিনার্সের। আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত নিয়ে দুই ক্লাবের খেলোয়াড়-কর্মকর্তারা বিবাদে জড়িয়ে পড়েন। খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের উছৃঙ্খলতায় শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি পণ্ড হয়।

প্রায় পাঁচ মাস পর ফেডারেশন মোহামেডানকে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করে। ম্যাচে বিশৃঙ্খলার জেরে মোহামেডানের দুজন ও মেরিনার্সের এক কর্মকর্তা নিষিদ্ধ হন পাঁচ বছরের জন্য।

mariner

দেশের নারী ভারোত্তোলক মাবিয়া আক্তার সীমান্ত বছরের শেষ দিকে মিশরে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক সলিডারিটি চ্যাম্পিয়নশিপে রৌপ্য জিতেছেন। একই আসরে রৌপ্য জিতেছেন আরেক নারী ভালোত্তোলক স্মৃতি আক্তার।

তবে তার আগেই দেশের সম্ভাবনাময় এ খেলা চলে আসে নেতিবাচক আলোচনায়। অভিযোগ ওঠে একজন নারী ভারোত্তোলককে তারই এক সতীর্থ ও ফেডারেশনের এক স্টাফ কর্তৃক যৌন নির্যাতনের। নির্যাতিত ওই নারী ভারোত্তোলক মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে এখনও হাসপাতালে ভর্তি।

এ নিয়ে থানায় মামলা হয়েছে। দেশের খেলাধুলার অভিভাবক সংস্থা জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ ও ভারোত্তোলন ফেডারেশন আলাদা আলাদা তদন্ত কমিটি গঠণ করেছে। প্রকৃত অপরাধীকে খুঁজে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে ক্রীড়াঙ্গনের নারীরা রাস্তায় মানববন্ধনও করেছেন। যদিও এখনো এ ঘটনার কোনো সুরাহা হয়নি।

দেশের অন্যান্য খেলার মধ্যে দাবায় বছরটি ভালো কেটেছে গ্র্যান্ডমাস্টার জিয়াউর রহমানের। বছরের শুরুতে দিল্লি ওপেনে রানারআপ হয়েছেন তিনি। চার বছর পর তিনি ফিনে পেয়েছেন জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা। তারই দল সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব প্রিমিয়ার জিতেছে প্রিমিয়ার লিগ। জর্জিয়ায় অনুষ্ঠিত দাবা অলিম্পিয়াডে ফাহাদ রহমান একটি আন্তর্জাতিক মাস্টারের নর্ম পেয়েছেন।

অ্যাথলেটিকে চমক দেখিয়েছেন হাসান মিয়া। তিনি ১০০ মিটার স্প্রিন্টে হারিয়ে দিয়েছেন টানা সাতবারের দ্রুততম মানব মেজবাহ আহমেদকে। তবে নারী অ্যাথলেট টানা সাতবারের মতো সেরা হয়েছেন ১০০ মিটার স্প্রিন্টে।

জাতীয় ব্যাডমিন্টনে দ্বিমুকুট পেয়েছেন নারী শাটলার শাপলা আক্তার। ঢাকায় অনুষ্ঠিত ইউনেক্স-সানরাইজ জুনিয়র আন্তর্জাতিক ব্যাডমিন্টনে ছিল বাংলাদেশের জয়জয়কার। ২০টি পদকের মধ্যে ৩ টি স্বর্ণসহ ১৭টিই গেছে স্বাগতিকদের ঝুলিতে।

আরআই/এসএএস/এমকেএইচ