সাতবারের দ্রুততম মানব মেজবাহ খেলছেন না ১০০ মিটারে

রফিকুল ইসলাম
রফিকুল ইসলাম রফিকুল ইসলাম , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:০৮ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০১৯

মোশারফ হোসেন শামীম সত্তরের দশকে দেশের অ্যাথলেটিকসে ছিলেন অনন্য এক নাম। টানা সাতবার দেশের দ্রুততম মানব হয়ে যে রেকর্ড গড়েছিলেন তাতে ৩৬ বছর পর ভাগ বসিয়েছেন এ সময়ের অন্যতম সেরা অ্যাথলেট মেজবাহ আহমেদ। ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত ৪১তম জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে সপ্তমবারের মতো দেশের দ্রুততম মানব হয়েছিলেন তিনি। টানা ৮ বছর ট্র্যাকে দাপটের সঙ্গে দৌড়ানো সেই মেজবাহ আহমেদকে এবার দেখা যাবে না ১০০ মিটার স্প্রিন্টে।

বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুরু হচ্ছে অ্যাথলেটিকসের জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপের ৪২তম আসর। বাংলাদেশ নৌবাহিনীর অ্যাথলেট মেজবাহ এ আসরে খেললেও দেখা যাবে না ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডের সবচেয়ে বড় আকর্ষণীয় ১০০ মিটার ইভেন্টে। ২০১১ সালের পর এই প্রথম হতে যাচ্ছে মেজবাহীন ১০০ মিটার।

গত বছর জুলাইয়ে সামার অ্যাথলেটিকসে রেকর্ডটি একান্তই নিজের করে নেয়ার স্বপ্ন নিয়ে ১০০ মিটারে দৌড়েছিলেন মেজবাহ। কিন্তু পারেননি দ্রুততম মানব হওয়ার ৭ সংখ্যাটাকে ৮ বানাতে। ৭ বারের সেরা মেজবাহকে হটিয়ে ট্র্যাকে চকম দেখিয়েছিলেন কুমিল্লার যুবক হাসান আলি। ১০.৮০ সেকেন্ড সময় নিয়ে ১৬ কোটি মানুষের দেশের দ্রুততম মানব হওয়ার কৃতিত্ব দেখিয়েছিলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্য হাসান আলী।

বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে যে কয়জন আছেন ১০০ মিটার দৌড়ে তাদের সঙ্গে এখনো সমানতালে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে যাচ্ছেন মেজবাহ। তারপরও কেন প্রিয় এ ইভেন্ট ছেড়ে তাকে খেলতে হবে ট্রিপল জাম্প ও রিলে-তে? আসলে তার সংস্থা বাংলাদেশ নৌবাহিনীর নিয়মই আছে এ ইভেন্টে তাদের ২ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন। সে হিসেবেও মেজবাহ সুযোগ পান। কারণ, ট্রায়ালে তিনি ভালো টাইমিং করেছেন।

রেকর্ড ৭ বার দ্রুততম মানব হওয়া মেজবাহ জানালেন, ‘আমাকে বলা হয়েছিল ১০০ মিটারে অংশ নিতে; কিন্তু আমি নতুনদের সুযোগ করে দিতে না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমি স্যারদের বলেছি নতুনদের সুযোগ দিতে।’

এবার বাংলাদেশ নৌবাহিনীর হয়ে ১০০ মিটার স্প্রিন্টে দৌড়াতে দেখা যাবে রাকিবুল ইসলাম ও ইসমাইলকে। এর মধ্যে ইসমাইল ১০০ মিটারে নতুন। লংজাম্পে তিনি ভালো খেলেন। গত সামার মিটে তিনি ৭.৩৭ মিটার লাফিয়ে জিতেছেন স্বর্ণ পদক।

মেয়েদের ১০০ মিটার স্প্রিন্টে বাংলাদেশের নৌবাহিনীর হয়ে খেলবেন শিরিন আক্তার ও সোহাগী আক্তার। গত সামার অ্যাথলেটিকসে ১০০ মিটারে শিরিন সেরা ও সোহাগী দ্বিতীয় হয়েছিলেন। ২০০ মিটারে শিরিনকে হারিয়ে স্বর্ণ জিতেছিলেন সোহাগী আক্তার। বাংলাদেশ নৌবাহিনী ১৫ স্বর্ণ, ১৫ রৌপ্য ও ১২ ব্রোঞ্জ পদক নিয়ে সামার অ্যাথলেটিকসে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল।

আরআই/আইএইচএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :