অভিষেকেই এসএ গেমসে স্বর্ণ জিততে চান রোমান সানা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:২০ পিএম, ০৯ নভেম্বর ২০১৯

রোমান সানা দেশের আরচারির সবচেয়ে বড় মুখ। টোকিও অলিম্পিকে সরাসরি খেলার যোগ্যতা অর্জনের মধ্যে দিয়ে নিজে যেমন উঠেছেন নতুন উচ্চতায়, তেমনি নিয়েছে বাংলাদেশের আরচারিকেও। দেশের সেরা এই তারকা প্রথমবারের মতো খেলতে যাচ্ছেন সাউথ এশিয়ান গেমসে।

আগামী ১ থেকে ১০ ডিসেম্বর নেপালের কাঠমান্ডু ও পোখারায় বসবে দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় এই গেমসের তেরতম আসর। যেখানে ২৫ ডিসিপ্লিনে অংশ নেবে বাংলাদেশ। তার মধ্যে আছে আরচারিও।

এক বছর আগেও আরচারি আলোচনায় ছিল না দেশের মানুষের মধ্যে। এখন সেই আরচারি নিয়ে নতুন স্বপ্ন দেখা শুরু। বিশেষ করে রোমান সানার অলিম্পিকে কোয়ালিফাই করা এবং ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ পদক পাওয়ার পর এসএ গেমসে অন্যতম সম্ভাবনাময় ডিসিপ্লিন হয়ে উঠেছে তীর-ধনুকের এই খেলা।

এবার এই ডিসিপ্লিন থেকে স্বর্ণ আসার সম্ভাবনার কথাই বলছেন সবাই। সিটি গ্রুপ তাদের চুক্তির তৃতীয় বছরে আরচারি ফেডারেশনকে দিচ্ছে ২ কোটি ৪১ লাখ টাকা। যা দ্বিতীয় বছরের চেয়ে ২১ লাখ টাকা বেশি।

ARCHARY

তো সম্ভাবনাটা কেমন? আজ (শনিবার) বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এসএ গেমসের আরচারির সম্ভবনা নিয়ে ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বলেছেন, ‘আমরা আগেই প্রতিশ্রুতি দিতে চাই না। তবে দুটি স্বর্ণ জয়ের আশা নিয়েই এগিয়ে যাচ্ছি।’

গোল ফর গোল্ড- কর্মসূচি নিয়ে দুই বছর আগে আরচারির সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছে সিটি গ্রুপ। শনিবার দুই পক্ষ তৃতীয় বর্ষের বাজেট ঘোষণা করেছে অনুষ্ঠানের মাধ্যমে। সেখানেই আরচারির বর্তমান, ভবিষ্যত ও সম্ভাবনা নিয়ে কথা বলেছেন ফেডারেশন ও স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা। উপস্থিত ছিলেন সাউথ এশিয়ান গেমস ক্যাম্পের ১৬ আরচারও।

বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ে ১০ নম্বরে থাকা আরচার রোমান সানা বলেছেন, ‘এটা আমার ক্যারিয়ারে প্রথম এসএ গেমস। প্রথম অংশগ্রহণেই আমি স্বর্ণ জিততে চাই।’

তবে রোমান সানা বলতে ভোলেননি যে, এসএ গেমসে তাদের শক্ত প্রতিপক্ষ হবে ভারতের আরচাররা, ‘আমি ভারতীয় আরচারের দিকে নজর রাখছি। তাদের আমি চিনি এবং তাদের স্কোরের খোঁজখবরও রাখছি। আসলে এসএ গেমসে আমার প্রথম লক্ষ্য হবে ফাইনালে ওঠা। ফাইনালে উঠতে পারলে আমি স্বর্ণ জিতে পারবো।’

আরআই/এসএএস/এমকেএইচ