মারজান আহত হওয়ায় আরেকটি স্বর্ণ হাতছাড়া

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:৩৬ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯

তিন স্বর্ণ, তিন রৌপ্য আর ১২ ব্রোঞ্জ নিয়ে এসএ গেমস শেষ করেছে বাংলাদেশ কারাতে দল; কিন্তু স্বর্ণের ঘরে তিন না হয়ে চারও হতে পারতো। ভাগ্য তা হতে দেয়নি। মেয়েদের দলগত কুমির সেমিফাইনালে অন্যতম সেরা খেলোয়াড় মারজান আক্তার প্রিয়া গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে গেলে বাংলাদেশ স্বর্ণ বঞ্চিত হয়।

কারাতে ডিসিপ্লিনে আগের দিন যে তিন স্বর্ণ এসেছিল তার দুটিই মেয়েদের হাত ধরে। স্বর্ণ জেতা মারজান আক্তার প্রিয়া আর হুমায়রা আক্তার অন্তরার সাথে মেয়েদের দলগত কুমিতে ছিলেন মাউনজেরা বন্যা; কিন্তু শ্রীলংকার বিরুদ্ধে খেলার সময় আঘাত পেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন প্রিয়া। তারপরও বাংলাদেশ ২-১ ব্যবধান জিতে উঠেছিল ফাইনালে।

প্রিয়াকে হারিয়ে ফাইনালে হুমায়রা আক্তার অন্তরার আর মাউনজেরা বন্যার সঙ্গে লড়াইয়ে নামেন নাইমা খাতুন। প্রিয়াকে ছাড়া পাকিস্তানের সঙ্গে পেরে ওঠেনি বাংলাদেশ। ২-১ পয়েন্ট হেরে রৌপ্য পদক নিয়েই খুশি থাকতে হয়েছে তাদের। প্রিয়া অবশ্য শঙ্কামুক্ত হয়ে হাসপাতাল ছেড়ে ফিরে গেছেন হোটেলে।

কারাতে কর্মকর্তাদের আপসোস, মারজান থাকলে অবশ্যই মেয়েদের দলগত কুমিতে স্বর্ণ আসতো। কারাতের স্বর্ণ বাড়তো, বাড়তো বাংলাদেশের স্বর্ণ।

ছেলেদের দলগত কুমিতে ব্রোঞ্জ পেয়েছে বাংলাদেশ। ছেলেদের অনূর্ধ্ব-৫০ কেজি কুমিতে ব্রোঞ্জ পেয়েছেন সুবজ মিয়া। মেয়েদের কুমিতে +৬৮ ওজন শ্রেণিতে আবিদা সুলতানা পেয়েছেন ব্রোঞ্জ পদক।

আরআই/আইএইচএস/পিআর