কুমিল্লায় পরিবারের সঙ্গে ঈদ করবেন ইসমাইল, বিকেএসপিতে শিরিন

রফিকুল ইসলাম
রফিকুল ইসলাম রফিকুল ইসলাম , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:০৩ পিএম, ১৩ মে ২০২১

করোনাভাইরাস ও লকডাউন থাকায় গত বছর ঈদুল ফিতরে গ্রামে যাওয়া হয়নি দেশের চারবারের দ্রুততম মানব মোহাম্মদ ইসমাইলের। এবার লকডাউন থাকলেও বাংলাদেশ গেমসের পর ছুটি নিয়ে গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার তিতাস উপজেলার কড়িকান্দি গেছেন ইসমাইল। পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করে ঢাকায় ফিরবেন বাংলাদেশ নৌবাহিনীর এ অ্যাথলেট।

বাংলাদেশ গেমসে দেশের দ্রুততম মানব হওয়ায় কয়েকদিন আগে এলাকার মানুষ সংবর্ধনা দিয়েছে ইসমাইলকে। পাশে উপজেলা দাউদকান্দির গৌরিপুর স্পোর্টিং ক্লাবের পক্ষ থেকে ইসমাইলকে সংবর্ধনা ও তার সম্মানে ইফতার মাহফিলও আয়োজন করা হয়েছিল।

দ্রুততম মানব যখন গ্রামে পরিবারের সবার সঙ্গে ঈদ উদযাপন করবেন তখন আরো একবার বাবা-মাকে রেখে বিকেএসপিতে ঈদ পালন করবেন দ্রুততম মানবী শিরিন আক্তার। টানা ১২ বারের দ্রুততম মানবী নিজের পারফরম্যান্স ধরে রাখতে ঘরবাড়ি ছেড়ে বিকেএসপিতে পড়ে আছেন অনুশীলনের জন্য।

Ismail Hossain

আরো একবার বাবা-মা ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের থেকে দুরে একা ঈদ কাটবে আপনার। কিভাবে সাজিয়েছেন ঈদের দিনের পরিকল্পনা? ‘এবার বিকেএসপিতে অনেকেই আছেন কর্মকর্তা-কর্মচারি। গত ঈদে যারা ছিলেন তাদের সঙ্গেই সারাদিন মজা করে সময় কাটিয়েছি। এবারও যারা আছেন তাদের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করবো। বিকেএসপি আমার কাছে আরেকটি পরিবারের মতো। এ প্রতিষ্ঠানকে কখনো পরিবার থেকে আলাদা করে ভাবি না। এ প্রতিষ্ঠানের জন্যই আমি আজ দেশসেরা অ্যাথলেট হতে পেরেছি’- বিকেএসপি থেকে বলছিলেন শিরিন আক্তার।

কয়েক বছর ঈদে বাড়ি যান না। বাবা-মায়ের মন খারাপ হয় নিশ্চয়ই? শিরিনের জবাব, ‘অবশ্যই। জানি বাবা-মা কষ্ট পাচ্ছেন। সবার বাবা-মা চান তাদের সন্তান ঈদে কাছে থাকুক। আমি বাড়িতে গেলে মা এত খুশি হন যে, চোখ আড়াল করে কান্না করেন। প্রত্যেক ঈদে জামা বানিয়ে রাখে। ঈদের দিন পর্যন্ত আমার জন্য অপেক্ষা করেন। আমার যাওয়া হয় না, বাবা-মায়েরও অপেক্ষার শেষ হয় না। সব ঠিকঠাক হলে বাড়িতে যাবো বাবা-মায়ের কাছে। যেতে না পারলেও আমি পরিবারের সবার জন্য ঈদেও জামা-কাপড় কিনে পাঠিয়ে দিয়েছি।’

অনুশীলনের স্বার্থে বিকেএসপিতে পড়ে থাকেন উল্লেখ করে শিরিন বলেন, ‘এক বছর ছুটি না কাটিয়ে ক্যারিয়ারের বেস্ট পারফরম্যান্স করেছি বঙ্গবন্ধু নবম বাংলাদেশ গেমসে। তাই আরেকটু চেষ্টা করছি যদি অলিম্পিকে খেলার সুযোগ পাই, তাহলে যেন সেখানে নিজের রেকর্ড টাইম করতে পারি। সেই আশায় বসে আছি। করোনা মহামারির এই দুঃসময় কাটিয়ে আমাদের সকলের জীবনে আসুক আনন্দ। দেশ ও দেশের বাইরে যে যেখানে অবস্থান করছেন সবাইকে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানাই। করোনা ভাইরাসের টিকা নিন, মাস্ক ব্যবহার করে সবাই সুস্থ ও নিরাপদ থাকুন।’

Shirin Akter

দ্রুততম মানব ইসমাইল বাবা-মা এবং ভাই-বোনদের জন্য ঈদের জামা-কাপড় কিনেছেন। এবার বেশ খুশি সবার সঙ্গে ঈদ উদযাপন করবেন বলে। কুমিল্লা থেকে ইসমাইল বলছিলেন, ‘বাড়িতে আমরা দুই ভাই-বোন এবং বাবা-মা। আমি সবার জন্যই কাপড় ও অন্যান্য জিনিসপত্র কিনেছি। মাকে বলেছি, ঈদের দিন সকালে যেন ভুনা খিচুড়ি ও গরুর মাংস ভুনা করেন। ওটা আমার প্রিয় খাবার। গত ঈদে আসতে পারিনি। এবার আগেভাগেই প্ল্যান করে এসেছি বাংলাদেশ গেমসের পর। প্রতিষ্ঠান থেকে ২৮ দিনে ছুটি নিয়ে এসেছি। ছুটি শেষে আবার যোগ দেবো কর্মস্থলে।’

আরআই/আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]