দক্ষিণ কোরিয়াকে হতাশ করে আরচারিতে ইতিহাস তৈরি করল তুরস্ক

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:২৪ পিএম, ৩১ জুলাই ২০২১

আরচারিতে একক আধিপত্য থাকে দক্ষিণ কোরিয়ার। এই ইভেন্টে অন্য কেউ স্বর্ণ পদক জিতে নেবে, তা যেন কল্পনাতেই আনতে পারে না কেউ। কিন্তু এবার টোকিও অলিম্পিকে সেই অসাধ্যই সাধন কলেন তুরস্কের আরচার, ২২ বছর বয়সী মেটে গ্যাজোজ।

রীতিমত ইতিহাস তৈরি করলেন তিনি। প্রথম তুর্কি তিরন্দাজ হিসেবে অলিম্পিকে প্রথম সোনার পদক জিতে নিলেন তিনি। অবাক করা বিষয় হলো পুরুষদের ব্যক্তিগত ইভেন্টের পোডিয়ামে উঠতে পারলেন না দক্ষিণ কোরিয়ার একজন তিরন্দাজও।

শনিবার ইউমেনোস হিমাপার্কে পুরুষ বিভাগের ব্যক্তিগত ইভেন্টের ফাইনালে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়। দুর্দান্ত শুরু করেন ইতালির মৌরা নেসপোলি। প্রথম সেটে ২৯ পয়েন্ট পান। ২৬ পয়েন্টের বেশি তুলতে পারেননি মেটে।

Mete-3

দ্বিতীয় সেটে দুই তিরন্দাজের ঝুলিতেই যায় ২৮ করে পয়েন্ট। ২৭ পয়েন্ট পেয়ে তৃতীয় সেট ছিনিয়ে নেন মেটে। মৌরা এক পয়েন্ট কম পান। চতুর্থ সেটে আবারও সমান পয়েন্ট (২৯ পয়েন্ট) পান তুরস্ক এবং ইতালির তিরন্দাজ।

৪-৪ অবস্থায় পঞ্চম সেটে নিজের স্নায়ু ধরে রাখতে পারেননি মৌরা। দুটি আট এবং একটি ১০ ছোড়েন। যার ফলে সোনা জয়ের জন্য ২৭ পয়েন্টের প্রয়োজন ছিল মেটের। ২২ বছরের যে তিরন্দাজ ৯, ১০ এবং ১০ ছুড়ে ইতিহাস তৈরি করেন। তার ফলে এবারের টোকিও অলিম্পিকের তিরন্দাজিতে দক্ষিণ কোরিয়া ছাড়া প্রথম অন্য কোনও দেশে সোনার পদক পেল।

সোনার পদক জয়ের পর মেটে বলেন, ‘আমি কঠিন পরিশ্রম করেছি এর জন্য। এখানে এসে যা যা করা প্রয়োজন, তার সবই করেছি। পোডিয়ামে সবার ওপরে দাঁড়িয়ে আমার আশ্চর্যরকম অনুভূতি হচ্ছিল যে, আমি শেষ পর্যন্ত এই মেডেলটি জিততে পেরেছি!’

Mete-3

অন্যদিকে, ব্রোঞ্জ পদক ম্যাচ জিতেছেন জাপানের তাকাহারু ফুরুকাওয়া। দুর্দান্ত লড়াই করেও পোডিয়ামে জায়গা পেলেন না চাইনিজ তাইপের চিহ-চুন ট্যাং। দুই তিরন্দাজই দারুণ শুরু করেন।

প্রথম সেটে ২৯ পয়েন্ট পান তাকাহারু। এক পয়েন্ট কম পান ট্যাং। পরের সেটেই ২৯ পয়েন্ট ছোড়েন তিনি। সেট হাতছাড়া হয় জাপানি তিরন্দাজের। তৃতীয় রাউন্ডে ২৮ পয়েন্টে শেষ করেন দু’জনই। পরের দুটি সেটে আরও টক্কর বাড়ে।

২৮ পয়েন্ট করে ছোড়েন চাইনিজ তাইপেয়ের তিরন্দাজ। ফলে রীতিমতো কড়া চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন। দু’বারই সেই চ্যালেঞ্জে বাজিমাত করেন তাকাহারু। যিনি ২৯ পয়েন্ট করে ছুড়ে ব্রোঞ্জ জিতে নিয়েছেন।

আইএইচএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]