সেমিতে জকোভিচকে হারানো জেভেরেভই জিতলেন টেনিসের স্বর্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৪৮ পিএম, ০১ আগস্ট ২০২১

গোল্ডেন স্ল্যামের আশায় টোকিও অলিম্পিকে খেলতে আসা বিশ্বের এক নম্বর টেনিস তারকা নোভাক জকোভিচকে সেমিফাইনালে বিদায় করে দিয়েছিলেন তিনি। অবশেষে জার্মানির সেই তারকা আলেকজান্ডার জেভেরেভের গলাতেই উঠলো অলিম্পিক টেনিসে পুরুষদের এককের স্বর্ণ পদক।

সেমিফাইনালে শীর্ষ বাছাই নোভাক জকোভিচকে হারিয়েই স্বর্ণের পথে অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছিলেন জেভেরেভ। বিশ্বের চতুর্থ বাছাই জার্মান তারকা রোববার স্বর্ণের লড়াইয়ে রাশিয়ান তারকা কারেন খাচানভকে হারিয়ে টোকিও অলিম্পিক্সের সোনার পদক গলায় ঝোলান।

সে সঙ্গে এই প্রথম কোনো জার্মান পুরুষ টেনিস তারকা হিসেবে অলিম্পিকে স্বর্ণ জিতলেন তিনি। ফাইনালে ১ ঘণ্টা ১৯ মিনিটের লড়াইয়ে দ্বাদশ বাছাই খাচানভকে ৬-৩, ৬-১ সরাসরি সেটে পরাজিত করেন জেভেরেভ। ১৯৮৮ সালে সিউল অলিম্পিকের নারী এককে জার্মানির স্টেফি গ্রাফ জিতেছিলেন স্বর্ণ পদক। একমাত্র তারকা হিসেবে সেবার তিনি গোল্ডেন স্ল্যামও জয় করেন।

খাচানভের গলায় উঠলো রৌপ্য পদতক এবং পুরুষ এককে ব্রোঞ্জ পদক জিতেছেন স্পেনের পাবলো কারেনো বুস্তা, যিনি আগের দিনই ব্রোঞ্জ পদকের ম্যাচে হারিয়েছিলেন জকোভিচকে।

অন্যদিকে, নারী এককে স্বর্ণ পদক জেতা বেলিন্দা বেনচিচের সামনে সুযোগ ছিল টোকিও অলিম্পিক্সে দ্বি-মুকুট জয়ের। যদিও জোড়া সোনা জিততে পারলেন না এই সুইস তারকা। ভিক্টোরিয়া গোলুবিচকে সঙ্গে নিয়ে ওমেনস ডাবলসের ফাইনাল ম্যাচে হেরে যান বেনচিচ।

শীর্ষ বাছাই চেক জুটি বারবোরা ক্রেজিকোভা ও ক্যাটেরিনা সিনিয়াকোভার কাছে ৫-৭, ১-৬ সরাসরি সেটে হার মানতে হয় বেলিন্দাদের। ফলে টোকিও থেকে একটি সোনা ও ১টি রুপা জিতেই অভিযান শেষ করেন বেনচিচ। ওমেনস ডাবলসের ব্রোঞ্জ পদক ওঠে ব্রাজিলের লরা পিগোসি ও লুইসা স্টেফানি জুটির গলায়।

আইএইচএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]