পরপর চার অলিম্পিকে সোনা জয় : নতুন ইতিহাস কিউবার কুস্তিগীরের

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:১৩ পিএম, ০২ আগস্ট ২০২১

চারটি অলিম্পিকেই তো অংশগ্রহণ করা অনেকটা স্বপ্নের মত। এত বয়স পর্যন্ত শরীরর ফিট রেখে, নিজেকে সেরার আসনে রেখে অলিম্পিকে অংশগ্রহণ করাটাই তো অসম্ভব হয়ে পড়ে। কিন্তু কিউবান অ্যাথলেট মিজান লোপেজ যে ইতিহাস তৈরি করলেন, তা রীতিমত প্রতিটি অ্যাথলেটের জন্যই দারুণ একটি শিক্ষা।

শুধু অংশগ্রহণেই সীমাবদ্ধ থাকেননি মিজান লোপেজ। টানা চারটি অলিম্পিকে স্বর্ণ জিতে রীতিমত রেকর্ড গড়েছেন তিনি। গ্রেকো-রোমান বিভাগে প্রথম কুস্তিগীর হিসেবে পরপর চার অলিম্পিকে সোনা জয়ের রেকর্ড গড়েছেন মিজান।

মিজান লোপেজের কৃতিত্ব বিরল হলেও একমাত্র নয়। কারণ কুস্তিতে আরও একজনের চার আসরে চারটি স্বর্ণ জয়ের রেকর্ড রয়েছে। তিনি হলেন জাপানের কাউরি ইচো। জাপানের এই কুস্তিগীর অবশ্য ফ্রি-স্টাইলে পরপর চারটি অলিম্পিক্সে সোনা জিতেছেন। ২০০৪, ২০০৮, ২০১২ এবং ২০১৬ অলিম্পিক্সে সোনা জেতেন কাউরি ইচো।

২০০৮ বেইজিং অলিম্পিক থেকে যাত্রা শুরু মিজান লোপেজের। এরপর ২০২০ টোকিও অলিম্পিক পর্যন্ত টানা চারবার সোনা জিতলেন কিউবার তারকা কুস্তিগির মিজান লোপেজ। এবার টোকিওতে সোনা জয়ের সঙ্গে সঙ্গেই নজিরও গড়ে ফেললেন তিনি।

মিজান ২০০৮ বেইজিং অলিম্পিক, ২০১২ লন্ডন অলিম্পিক, ২০১৬ রিও অলিম্পিক এবং এবার টোকিও অলিম্পিকে সোনা জিতলেন। সোমবার জর্জিয়ার লাকোবি কাজাইয়াকে গ্রেকো-রোমান ১৩০ কেজি ওজন শেয় ফাইনালে ৫-০ পরাজিত করেন মিজান।

দশ বছর বয়সে কুস্তি শুরু করেছিলেন কিউবার মিজান লোপেজ। কুস্তিটা তার কাছে শুধু পেশা নয়, ভালবাসা হয়ে গেছে। হয়তো সে কারণেই তার টানা সাফল্য।

রোববার সেমিফাইনালে তুরস্কের রিজা কায়ালপকে ২-০ হারিয়েছিলেন। রিও-তে সোনা জয়ের ম্যাচে আবার কায়ালপের মুখোমুখি হয়েছিলেন মিজান লোপেজ। সে বারও তিনি তুরস্কের কুস্তিগীরকে হারিয়েছিলেন। বার অবশ্য সেমিফাইনালে হারালেন। রিজা কায়ালপ আবার এই বিভাগে ব্রোঞ্জ জিতেছেন।

আইএইচএস/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]