ঘরের বিছানা নষ্ট ও দেয়াল ছিদ্র করেছে অস্ট্রেলিয়ানরা

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:২৮ পিএম, ০৪ আগস্ট ২০২১

টোকিও অলিম্পিকে খেলতে গিয়ে বাজে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রীড়াবিদরা। অলিম্পিক ভিলেজের বিছানাপত্র নষ্ট করার পাশাপাশি দেয়ালেও ছিদ্র করে রেখে গেছেন তারা। শুধু তাই নয়, দেশের ফেরার পথে অতিরিক্ত মধ্যপান করে বিমানেও পাগলামি করেছে অসিরা।

এমন সব অভিযোগ এনেছে টোকিও অলিম্পিক গেমস আয়োজক কর্তৃপক্ষ। এই অভিযোগের বিপরীতে নিজেদের দায় অস্বীকারও করেনি অস্ট্রেলিয়ার অলিম্পিক দল। বরং নিজেদের ক্রীড়াবিদদের পক্ষে দাঁড়িয়ে সাফাই গেয়েছে অস্ট্রেলিয়ার দলীয় প্রধান ইয়ান চেস্টারম্যান।

তিনি জানিয়েছেন, ক্ষয়ক্ষতি যা হয়েছে তা খুবই অল্প এবং কার্ডবোর্ডের বিছানা নষ্ট হওয়াও কোনো বড় বিষয় নয়। পাশাপাশি ক্রীড়াবিদরা এ ঘটনায় ক্ষমা চাওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থাও নেয়া হবে না। কোন ক্রীড়াবিদরা এমন কাজ করেছেন তা জানাননি চেস্টারম্যান।

তবে অস্ট্রেলিয়ান অলিম্পিক কমিটি জানিয়েছেন, দেশটির ফুটবল ও রাগবি ইউনিয়নের পক্ষ থেকে সিডনিতে ফেরার ফ্লাইটে অগ্রহণযোগ্য আচরণের বিরুদ্ধে তদন্ত করা হবে। এ বিষয়ে এরই মধ্যে অভ্যন্তরীণ তদন্ত শুরুও হয়ে গেছে।

চেস্টারম্যান বলেছেন, ‘কিছু তরুণ একটা ভুল করেছে। তারা রুম যেভাবে ছেড়েছে, সেটা অগ্রহণযোগ্য। তবে রুমগুলো কোনোভাবেই পুরোপুরি আবর্জনার স্তুপ বানানো হয়নি।’

ফ্লাইটে পাগলামির বিষয়ে অস্ট্রেলিয়ান অলিম্পিক কমিটির প্রধান নির্বাহী ম্যাট ক্যারোল বলেছেন, ‘ফ্লাইট পরিচালনাকারী এয়ারলাইনসের পক্ষ থেকে কোনো আনুষ্ঠানিক অভিযোগ করা হয়নি। তবে অগ্রহণযোগ্য আচরণের বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘এটা সত্যিই হতাশাজনক। তবে রাগবি ও ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংগঠক আমাকে জানিয়েছে যে, এমন আচরণ তারা সহ্য করবে না এবং অস্ট্রেলিয়ার অলিম্পিক দলের কাছে দুঃখপ্রকাশ করেছে।’

এসএএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]