রাজশাহী হাইটেক পার্কে এমডি ইনফোটেকের দ্বিতীয় অফিস উদ্বোধন

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:২৭ পিএম, ২৭ জানুয়ারি ২০২২

রাজশাহীর বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্ক তথ্যপ্রযুক্তি খাতের প্রতিষ্ঠান এমডি ইনফোটেকের দ্বিতীয় অফিস উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) রাজশাহীর বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্কে এই আউট সোর্সিং ফার্মটির অফিস উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। একই হাইটেক পার্কে প্রতিষ্ঠানটির আরেকটি অফিস আছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, স্টার্টআপদের জন্য সব ধরনের সুবিধা আইসিটি বিভাগ থেকে দেওয়া হচ্ছে। আমরা চাই এসব স্টার্টআপ থেকেই বড় বড় আইটি প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠুক। এজন্য স্টার্টআপদের প্রয়োজনীয় মেন্টরিং এবং ফান্ডিং নিশ্চিত করতে আমরা কাজ করছি।

তিনি বলেন, দেশের প্রতিটি হাইটেক পার্কে স্টার্টআপদের জন্য একটি করে ফ্লোর বরাদ্দ রাখা হয়েছে যেখানে তারা বিনাভাড়ায় কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ তাদের সব ধরনের ইউটিলিটি সুবিধা প্রদান করছে। এমডি ইনফোটেকের মঞ্জুরুল মোরশেদদের মতো তরুণরাই চতুর্থ শিল্পবিপ্লবে নেতৃত্ব দেবে বলেও মন্তব্য করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক।

অনুষ্ঠানে এমডি ইনফোটেকের সিইও মঞ্জুরুল মোরশেদ বলেন, দেশের বেকার সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে এমডি ইনফোটেক চলতি বছর ১৫ হাজার কর্মসংস্থান সৃষ্টি করবে। একইসঙ্গে পরিবেশ সুরক্ষায় আইটি সহায়ক উদ্ভাবনী নিয়ে কাজ করছি আমরা। এরইমধ্যে আমাদের উদ্ভাবনী পণ্য বিশ্বখ্যাত বিপণন প্রতিষ্ঠান ওয়ালমার্টে রফতানি হচ্ছে। সরকারের ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়ন এবং উন্নত বিশ্বের কাতারে পৌঁছাতে আমরা কাজ করবো।

এমডি ইনফোটেক একটি দ্রুত বর্ধনশীল আউটসোর্সিং ফার্ম। এটি দেশের গন্ডি ছাড়িয়ে এখন আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও পরিচিত নাম। গেল ৪ বছরে এই প্রতিষ্ঠানটি ৬০০ এর বেশি কর্মসংস্থান তৈরি করেছে।

‘আমরা ভবিষ্যত উদ্ভাবন করতে সহায়তা করি’ এই স্লোগানকে ধারণ করে বিশেষত তরুণদের ভবিষ্যৎ নির্মাণকে নিশ্চিত করার প্রত্যয়ে কাজ করে যাচ্ছে এমডি ইনফোটেক। প্রতিষ্ঠাবটি বর্তমানে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, গ্রাফিক ডিজাইন, আইটি সল্যুউশন, ই-কমার্স ডেভেলপমেন্ট, কন্টেন্ট তৈরি, প্রাইভেট লেবেল প্রোডাক্ট ম্যানুফ্যাকচারিং, এসএম ব্র্যান্ডিং এবং ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের কাজ করছে।

শীর্ষ দুটি ই-কমার্স মার্কেটপ্লেস অ্যামাজন ও ওয়াল্মার্ট এর স্টোর পরিচালনা প্রতিষ্ঠানটির সেবাগুলোর অন্যতম। এছাড়াও রোবোটিক্স টেকনোলজি, এআই সমাধান এবং পরিষেবা নিয়ে কাজ করার পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। চলতি বছর কোম্পানিতে ১৫ হাজার জনবল নিয়োগ দেওয়ার লক্ষ্য রয়েছে।

বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সারাদেশে স্থাপিত সকল স্থাপনাগুলোতে কমপক্ষে একটি করে ফ্লোর স্টার্টআপসমূহের জন্য বিনামূল্যে বরাদ্দ দিচ্ছে। এই ফ্লোরগুলোতে ১৫১টি স্টার্টআপ বর্তমানে এক বছরের জন্য কো-ওয়ার্কিং স্পেস, লজিস্টিক ও ইউটিলিটি সাপোর্ট এর পাশাপাশি তাদের জন্য এক বছর ব্যাপি ইন-হাউজ মেন্টরিং ফর স্টার্টআপ (আইএমএস) এর উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. বিকর্ণ কুমার ঘোষ, অ্যামাজন এর স্টার্টআপ ও সল্যুশন আর্কিটেক্ট মো. মাহদি-উজ জামান প্রমুখ।

এইচএস/এসএইচএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]