বিপিও ব্যবসার অগ্রগতি সন্তোষজনক


প্রকাশিত: ০৯:০১ এএম, ২৬ জুলাই ২০১৬

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বাংলাদেশের বিজনেস প্রসেস আউটসোর্সিং (বিপিও) ব্যবসার অগ্রগতি সন্তোষজনক, যার বর্তমান বাজার মূল্য ১৮০ মিলিয়ন ডলার।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের আইসিটি ডিভিশনের সভাকক্ষে আগামী ২৮-২৯ জুলাই ‘বিপিও সম্মেলন ২০১৬’ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

পলক বলেন, পাশের দেশ ভারত, শ্রীলংকা ও ফিলিপাইন বিপিও সেক্টরে সবচেয়ে ভালো করেছে। বিপিও সেক্টরে সারা বিশ্বের ৬০০ বিলিয়ন ডলারের মধ্যে ভারত ১০০ বিলিয়ন, ফিলিপাইন ১৬ বিলিয়ন এবং শ্রীলংকা ২ বিলিয়ন ডলার আয় করছে। আমাদের লক্ষ্য স্থানীয় বাজার সম্প্রসারণ করা ও বৈশ্বিক বাজারে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ২০২১ সালের মধ্যে এই খাত হতে ১ বিলিয়ন ডলার আয় এবং ৫ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মস্থান সৃষ্টি করা।

তিনি বলেন, বিশ্বের যে সকল দেশ বিপিও খাতে ভালো করছে তারা সবাই নিজেদের অভ্যন্তরীণ খাতের বিপিও শিল্পকে শক্তিশালী করছে। যেমন ভারতের এ বছরের লক্ষ্যমাত্রা ১২০ বিলিয়ন ডলারের মধ্যে ২০ বিলিয়ন ডলার আসবে অভ্যন্তরীণ বাজার থেকে। বিশ্ব বাণিজ্যে ভাল করার জন্য আমাদের অভ্যন্তরীণ মার্কেটও শক্তিশালী করতে হবে। আমাদের দেশের কল সেন্টারগুলো একটা বড় অংশই অভ্যন্তরীণ চাহিদা মেটাচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, তাই স্থানীয় অভিজ্ঞতার আলোকে বিশ্ববাজারে নিজেদের সক্ষমতা তুলে ধরার জন্য এবারের সামিটের উপজীব্য হিসেবে নেয়া হয়েছে ‘স্থানীয় অভিজ্ঞতা, বৈশ্বিক ব্যবসা’।

বিপিও সামিটের লক্ষ্য বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এই সামিটের মাধ্যমে বিশ্বের কাছে বিপিও খাতে আমাদের সক্ষমতা ও দক্ষতার কথা তুলে ধরতে চাই। দেশের তরুণদের মাঝে এই সেক্টরকে কাজের সম্মানজনক ক্ষেত্র হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেয়া এবং বিপিও সেক্টররে এগিয়ে যেতে পারলে ‘ভিশন ২০২১’ অর্জন সহজতর সম্ভব, সে বিষয়ে সাধারণ মানুষকে সচেতন করাও এই সম্মিলনের অন্যতম উদ্দেশ্য।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, দুইদিনব্যাপী এই আয়োজনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি-বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

দ্বিতীয় দিনে সামিটের সমাপনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এছাড়াও সমাপনী দিনে দেশের সফল বিপিও খাতের উদ্যোক্তাদের পুরস্কৃত করা হবে।

দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে বিজনেসপ্রসেস আউটসোর্সিং (বিপিও) খাতের অবস্থানকে তুলে ধরতে এবং দেশে আউটসোর্সিং খাতে পর্যাপ্ত জনবল তৈরি করতে দ্বিতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘বিপিও সম্মেলন ২০১৬’।

বুধবার সকাল ১০টায় রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি-বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। এসময় উপস্থিত থাকবেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

সম্মেলনটি আয়োজন করছে সরকারের তথ্যও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, আইসিটি অধিদফতর এবং বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং (বাক্য)।

গত বছর ওই সম্মেলনে বাক্যের সদস্যভুক্ত ছয়টি প্রতিষ্ঠানে তাৎক্ষণিকভাবে ২৩৫ শিক্ষার্থীকে চাকরি দেয়া হয়েছিল। এবারও তাৎক্ষণিকভাবে শিক্ষার্থীদের এই খাতে চাকরি দেওয়া হবে। চার থেকে পাঁচশো শিক্ষার্থী এই সুযোগ পাবেন।

দেশের তরুণ-তরুণীদের বেশি করে এই খাতে আগ্রহী করে তোলা এবং দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে বিপিও খাতের অবস্থানকে তুলে ধরাই এই আয়োজনের প্রধান লক্ষ্য বলে জানান আয়োজকরা।

এবারের আয়োজনে মোট ১২টি সেমিনার ও কর্মশালা অনুষ্ঠিত হবে। এ সেমিনার ও কর্মশালায় দেশি-বিদেশি প্রযুক্তিবিদরা অংশ নেবেন। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষর্থীদের নিয়ে থাকবে বিশেষ আয়োজন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, আইসিটি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার, আইসিটি অধিদফতরের মহাপরিচালক বনমালী ভৌমিক, বাক্যের সভাপতি আহমাদুল হক, সাধারণ সম্পাদক তৌহিদ হোসেন প্রমুখ।

আরএম/একে/পিআর

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]

আপনার মতামত লিখুন :