সাইবার সিকিউরিটি আইনের পর হচ্ছে ‘এজেন্সি’


প্রকাশিত: ০৫:১১ পিএম, ১৭ মে ২০১৭
সাইবার সিকিউরিটি আইনের পর হচ্ছে ‘এজেন্সি’

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় সাইবার সিকিউরিটি অ্যাক্ট পাসের পরই হচ্ছে সাইবার সিকিউরিটি এজেন্সি। এ লক্ষ্যে দু’বছর ধরে সাইবার সিকিউরিটিকেও সমান ভাবে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।

বুধবার বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) কার্যালয়ের সামনে বিশ্ব টেলিযোগাযোগ ও তথ্য সংঘ দিবস উপলক্ষে আয়োজিত র‌্যালি ও রোড শো’র উদ্বোধন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

তারানা হালিম বলেন, সাইবার সিকিউরিটি নিয়ে বিভিন্ন সংস্থা বিচ্ছিন্নভাবে কাজ করছে। তবে এখানে সমন্বয়হীনতা রয়েছে। সাইবার সিকিউরিটি অ্যাক্ট পাস হলে সাইবার সিকিউরিটি এজেন্সি করা হবে, তখন অসমন্বিত উদ্যোগগুলো সমন্বয় হবে।

‘সাইবার সিকিউরিটির বিষয়টি বিগত দু’বছর ধরে জোর দেয়া হচ্ছে এবং আইন প্রণয়নের অপেক্ষায় রয়েছে। আইন প্রণয়ন হলে সাইবার সিকিউরিটি এজেন্সি হবে। সেটি প্রধানমন্ত্রীর দফতরের অধীনে থাকবে।’

তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের জন্য যত দ্রুত এগিয়েছি, সমানতালে সাইবার সিকিউরিটির বিষয়টি শুরু থেকে ততটা গুরুত্বারোপ করা হয়নি। এর মূল কারণ হচ্ছে, তখন ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণকেই অগ্রাধিকার হিসেবে গণ্য করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব শ্যাম সুন্দর শিকদার, বিটিআরসি চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ, ভাইস চেয়ারম্যান আহসান হাবিব খান, বেসরকারি মোবাইল ফোন অপারেটর রবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাহতাব উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরএম/এমএমএ/ওআর/পিআর