ইন্টারনেট গ্রাহক সেবার মান বাড়াতে চায় টিম ক্যাটালিস্ট

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৫৪ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০১৯

দেশের ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন আইএসপিএবি’র কার্যনির্বাহী কমিটির ২০১৯-২১ মেয়াদের নির্বাচন আগামী ২৬ অক্টোবর। এবারের নির্বাচনে পরিবর্তনের অঙ্গীকার নিয়ে অংশ নিচ্ছে 'টিম ক্যাটালিস্ট' প্যানেল। আট প্রার্থী নিয়ে গঠিত হয়েছে এই প্যানেল।

প্যানেল প্রার্থীরা হলেন- আইসিসি কমিউনিকেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইফুল ইসলাম সিদ্দিক, ব্রাক নেটের প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা আজহারুল হক চৌধুরী, গ্রামীণ সাইবারনেটের পরিচালক মো. রুহুল আমিন সরকার, বাংলানেট টেকনোলজিসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জোবায়ের আল মাহমুদ হোসেন, ডলি আইটি কর্নারের প্রোপ্রাইটর মো. মনিরুজ্জামান মনির, জেডএক্স অনলাইনের চেয়ারম্যান এস, এম, জুলফিকার হায়দার, ব্রিস্ক সিস্টেমের চেয়ারম্যান মো. শরিফুল ইসলাম এবং চিটাগাং মাল্টি চ্যানেলের পরিচালক (প্রশাসন) কামরুল আলম শামীম।

টিম ক্যাটালিস্টের ইশতেহারে ব্যবসাবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি, উৎকর্ষসাধন এবং গ্রাহক সেবার মান বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি রয়েছে। এ প্যানেলের অন্যতম সদস্য সাইফুল ইসলাম সিদ্দিকী বলেন, দীর্ঘদিন আইএসপিএবিতে একই নেতৃত্ব থেকেছে। ফলে সংগঠনের কার্যক্রমে স্বাভাবিকভাবেই স্থবিরতা এসেছে।

আইএসপি প্রতিষ্ঠানগুলো সেবা ও সময়ের বিবেচনায় যতটা গুরুত্ব ও মর্যাদা পাওয়ার কথা ছিল, তা পায়নি। এ কারণে আইএসপি প্রতিষ্ঠানগুলোকে প্রাপ্য মর্যাদায় উন্নীত করা, অধিকার অর্জন এবং গ্রাহকদের কাছে মানসম্পন্ন সেবা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্য নিয়েই এবারের নির্বাচনে টিম ক্যাটালিস্ট প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে।

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে তৃণমূল পর্যায়ে ইন্টারেনেটকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার। ফলে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট, আইপি টিভি, ক্লাউড কম্পিউটিংসহ নানা কাজে আইএসপি প্রতিষ্ঠানের গুরুত্ব বাড়ছে। নির্বাচনে বিজয়ী হতে পারলে এসব বিষয়ে আইএসপি প্রতিষ্ঠানের স্বার্থ নিয়ে সরকারের সঙ্গে কাজ করবে টিম ক্যাটালিস্ট।

তিনি বলেন, আমরা ভোটারদের কাছে যাচ্ছি তাদের কাছে আমাদের প্রতিশ্রুতি উপস্থাপন করছি এবং ভালো সাড়া পাচ্ছি। আশা করছি নির্বাচনে আমরা বিজয়ী হতে পারব। ব্রাক নেটের প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা আজহারুল হক চৌধুরী বলেন, আমরা আমাদের ঘোষিত ইশতেহারে সুনির্দিষ্টভাবে কমিটি গঠনের ৯০ দিনে বাস্তবায়নযোগ্য ১০টি লক্ষ্য ও পরবর্তী ৬ মাসের ১০টি লক্ষ্য ছাড়াও শেষ ১৫ মাসের জন্য ১৭টি লক্ষ্য প্রকাশ করেছি।

একইসঙ্গে লক্ষ্য বাস্তবায়নের মাধ্যমে প্রযুক্তি খাতের অন্যান্য সংগঠনের মধ্যে পিছিয়ে থাকা আইএসপি খাতকে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শীর্ষ পর্যায়ে নিয়ে আসার প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয়েছে। এজন্য সংগঠনকে কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর কাছে জিম্মি না রেখে দেশ ও সদস্যদের কল্যাণে কাজ করার অঙ্গীকার করেছেন টিম ক্যাটালিস্টের সদস্যরা।

তিনি বলেন, আমরা আইএসপি সংগঠনগুলোকে একটি পরিবার হিসেবে মনে করি। এই পরিবারের কোনো সদস্যই যেন পিছিয়ে না থাকেন; একইসঙ্গে আমাদের ইন্টারনেট সেবাগ্রহীতারাও যেন বঞ্চিত না হন সে বিষয়টি মাথায় নিয়েই গঠিত হয়েছে টিম ক্যাটালিস্ট। আমরা কল্যাণের লক্ষ্যে পরিবর্তনে অঙ্গীকারাবদ্ধ।

আমরা আইএসপির জন্য কাজ করি, আমরা দেশের জন্য নিবেদিত। তিনি বলেন, আমরা দায়বদ্ধতা এবং জবাবদিহিতায় বিশ্বাসী। একারণেই টিম ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে সুবিন্যস্ত ইশতেহারও প্রকাশ করেছি। ভোটাররা কেন টিম ক্যটালিস্টকে ভোট দেবেন সে বিষয়টি উল্লেখ করেছি।

মুখ চিনে নয়, আমরা কাজের মাধ্যমেই মূল্যায়িত হওয়ার আস্থা রাখি। নিয়মতান্ত্রিক নির্বাচন না হওয়ায় আইএসপিএবি এখন স্তিমিত হয়ে আছে। অনেকটা চোরাবালিতে আটকে থাকার মতো। আমরা সেখান থেকে গতিশীল অবস্থানে নিয়ে যেতে চাই। টিম ক্যাটালিস্টে ইশতেহারসহ যাবতীয় তথ্য পাওয়া যাবে (https://catalyst.team/) ঠিকানায়।

এএ

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com