হয়ে গেল দেশের সবচেয়ে বড় আউটসোর্সিং কনফারেন্স

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:২০ পিএম, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বেসিস সফটএক্সপো-২০২০ এর দ্বিতীয় দিন শুক্রবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরার (আইসিসিবি) হল-১ এ অনুষ্ঠিত হয়েছে দেশের সবচেয়ে বড় আউটসোর্সিং কনফারেন্স।

আউটসোর্সিং কনফারেন্স পাওয়ার্ড বাই ব্যাংক এশিয়া ও পেওনিয়ার শিরোনামে এ আয়োজনে সভাপতিত্ব করেন পেওনিয়ারের বাংলাদেশ ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর এমরাজিনা ইসলাম। তিন শতাধিক তরুণ ফ্রিল্যান্সারের অংশগ্রহণে সেশনটি ছিল বেশ প্রাণবন্ত। কনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন স্বনামধন্য বিশেষজ্ঞরা।

ঘরোয়া পরিবেশে বা ইনফর্মালভাবে কাজ করা তরুণদের জন্য কেন বেসিসের সাথে যুক্ত হওয়া জরুরি তা তুলে ধরেন প্রধান বক্তা বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ফারহানা এ রহমান। তিনি বলেন, ইনফর্মালভাবে কাজ করে যাওয়ার কারণে অনেক সময় তরুণরা সরকারের নানান সুযোগ সুবিধা-সম্পর্কে জানতে পারছেন না। কিন্তু বেসিসের সাথে যুক্ত হলে তারা নিজেদের এই ছোট পরিসরের কাজকে একটি ফর্মাল ও প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে পারবেন এবং বেসিসের মাধ্যমে সরকারের দেয়া সুযোগ-সুবিধাগুলোর বিষয়ে জানতে পারবেন। পাশাপাশি এর সুফল ভোগ করতে পারবেন।

তরুণ ফ্রিল্যান্সারদের দিক নির্দেশনা দিয়ে তিনি আরও বলেন, ফ্রিল্যান্সাররা হয়তো মার্কেটপ্লেস থেকে কাজ নিয়ে ছোট পরিসরে কাজ করছেন। কিন্তু যখন সরাসরি ক্লায়েন্ট থেকে কাজ নিয়ে কাজ করবেন, তখন তাদের পরিসর আরও বড় হবে। আর সেই সুযোগ করে দিচ্ছে বেসিস। এছাড়া, যে সকল সহযোগিতা পেলে একজন ফ্রিল্যান্সার বড় কাজ পেতে পারেন, সেসব তথ্য তারা সহজেই বেসিস থেকে জানতে পারবেন। সর্বোপরি, বেসিস এমন একটা প্লাটফর্ম যেখানে তরুণদের জন্য প্রতিনিয়ত নানা প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। বেসিসের মাধ্যমে তারা বড় কোম্পানিগুলোর সাথে যোগাযোগ করার এবং অনেক কিছু শেখার সুযোগ পাবেন।

Conference

ব্যাংক এশিয়ার সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ জিয়া আরফিন বলেন, বাংলাদেশে ফ্রিল্যান্সারদের সুবিধা দিতে ব্যাংক এশিয়া কাজ করছে। তাদের আরও উৎসাহিত করতে ব্যাংক এশিয়া এবং বেসিস মিলে কো-ব্র্র্যান্ডেড স্বাধীন নামে প্রিপেইড কার্ড চালু করেছে। এ কার্ডের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সাররা খুব সহজেই বিদেশ থেকে দেশে লেনদেন করতে পারবেন।

তিনি বলেন, আউটসোর্সিং এখন বাংলাদেশের তরুণদের কাছে দারুণ একটি ক্যারিয়ার তৈরির প্লাটফর্ম হিসেবে গুরুত্ব পেয়েছে। এদেশের তরুণেরা এরই মধ্যে আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা আয় করতে শিখেছেন। পরিকল্পনা, দিক-নির্দেশনা আর সঠিক প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে এ খাত থেকে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা আয় করা ছাড়াও তরুণদের ঘরোয়া কর্মসংস্থানের বিশাল সুযোগ তৈরি করা সম্ভব। এ খাতের উন্নয়নে বেসিস শুরু থেকেই গুরুত্বের সাথে কাজ করে আসছে। আগামী দিনেও আউটসোর্সিং খাতের উন্নয়নে উদ্যোক্তা এবং আগ্রহীদের সহযোগিতায় কাজ করবে বেসিস।

এ সেশনের বক্তা হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন- পেওনিয়ারের সাউথ এশিয়া, মিডিল ইস্ট অ্যান্ড নর্থ আফ্রিকার হেড অব মার্কেটিং প্রসন্ন রাও, কাটআউটউইজের ফাউন্ডার অ্যান্ড সিইও কাউসার আহমেদ নীরব, গ্রামীণ ফোনের হেড অব স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম মিনহাজ আনোয়ার, জায়েদ গ্রুপের ফাউন্ডার অ্যান্ড সিইও আবদুল্লাহ জায়েদ, জুমসেপার প্রতিষ্ঠানের সিইও কাউসার আহমেদ, ব্রেইন স্টেশন ২৩’র কো-ফাউন্ডার অ্যান্ড সিইও রাইসুল কবির এবং আপওয়ার্কের হেড অব মার্কেটিং ডাটা অপারেশনস সাইদুর মামুন খান।

এএ/পিআর

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com