‘ডিজিটাল বাংলাদেশ আমাদেরই প্রতিষ্ঠিত করতে হবে’

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৩৩ পিএম, ০২ জুলাই ২০২০

ইন্টারনেট অব থিংস (আইওটি) বিষয়ের অনলাইন প্রশিক্ষণ আয়োজন করে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের “উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমি প্রতিষ্ঠাকরণ প্রকল্প (আইডিয়া)।

বুধবার দিনব্যাপী এ প্রশিক্ষণে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম পিএএ বলেন, আমরা প্রথম দিকের শিল্প বিপ্লবে অংশীদার হতে পারিনি। আমরা এখন চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে আছি। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের যে ডিভাইসগুলো আছে সেগুলোতে আমাদের পারদর্শিতা এখন ক্রমান্বয়ে বেড়েছে। সফলতার জন্য আমাদের সবাইকে অতিরিক্ত পরিশ্রম করতে হবে।

তিনি বলেন, বর্তমানে বিভিন্ন সরকারি কাজে দেশের দক্ষতা বা স্কিল ব্যবহার শুরু হয়েছে। আমাদের যে জনশক্তি আছে সেটাকে আরো প্রযুক্তিতে দক্ষ করে গড়ে তুলে যদি আমরা আগামী দিনের পথ দেখতে পারি তাহলে আমাদের যে কাঙ্ক্ষিত স্বপ্ন “২০৪১ সালে উন্নত বিশ্ব” সেটা আমরা অর্জন করতে পারব বলে মনে করি। সেই লক্ষ্যে আমাদের সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বিসিসি’র নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব বলেন, আইডিয়া প্রকল্পের মাধ্যমে আমরা বাংলাদেশে উদ্ভাবনী সংস্কৃতি তৈরি করে একটি ইনোভেশন ইকোসিস্টেম সৃষ্টি করতে চেষ্টা করছি।

তিনি আইওটি’র প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা করে বলেন, একটি স্মার্ট সিটি বা একটি স্মার্ট পরিবেশ তৈরি করতে আইওটির অবদান অপরিসীম। এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে প্রশিক্ষণার্থীরা আইওটি সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে পারবে বলে তিনি আশাবাদী।

বুয়েটের সিএসই বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক ও প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ ড. এম কায়কোবাদ বলেন, আমাদের শুধু কম্পিউটার থাকলেই চলবে না এর পাশাপাশি এর সাথে সংযোগ থাকতে হবে ও দক্ষতাও অর্জন করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলার এখনকার রূপ হলো ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’। এই ডিজিটাল বাংলাদেশ আমাদের নিজেদেরই প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। বিদেশ থেকে কম্পিউটার এবং যন্ত্রাংশ কিনে, সফটওয়্যার কিনে, বিদেশের প্রকৌশলীদের বাংলাদেশে এনে ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব নয়। বিদেশী পরামর্শক ব্যয়বহুল তাই দেশে যদি দক্ষতা বাড়ানো যায় তবে সেটা অধিক ফলপ্রসূ হতে পারে।

অনলাইন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আইডিয়া প্রকল্পের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) সৈয়দ মজিবুল হক। দিনব্যাপী এই প্রশিক্ষণে রিসোর্স পারসন হিসেবে সংযুক্ত হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব ইনফরমেশন টেকনোলজির (আইআইটি) সহযোগী অধ্যাপক ড. বি. এম. মইনুল হোসেন, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের প্রফেসর ড. এ. বি. এম. আলিম আল ইসলাম এবং বন্ডস্টেইন টেকনোলজিস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের গ্লোবাল শেপার মীর শাহরুখ ইসলাম।

প্রশিক্ষণে রাজশাহী বিভাগের প্রায় ৭০ জনের বেশি প্রশিক্ষণার্থী অনলাইন প্ল্যাটফর্ম জুমের মাধ্যমে সংযুক্ত হন।

এএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]