টেকসই স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম গড়তে কাজ করবে আইইবি ও আইসিটি ডিভিশন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:০১ এএম, ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

দেশে টেকসই স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম গড়ে তুলতে একসঙ্গে কাজ করবে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগ ও ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি)।

বৃহস্পতিবার ‘সেন্টার অব এক্সিলেন্স অন ফোর্থ ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিভোলিউশন’ এবং ‘শেখ হাসিনা ইনস্টিটিউট ফর ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজি’তে যৌথভাবে রিসার্চ ও ইনোভেশন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য আইইবি এবং আইসিটি ডিভিশনের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বক্তারা এই আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অনলাইনে সংযুক্ত ছিলেন আইসিটি ডিভিশনের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। বিশেষ অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন আইইবির প্রেসিডেন্ট এবং আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো. আবদুস সবুর।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আইসিটি ডিভিশনের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম পিএএ। সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন আইইবির সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী খন্দকার মনজুর মোর্শেদ এবং আইসিটি ডিভিশনের যুগ্ম সচিব মো. আক্তরুজ্জান। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সিআরআইয়ের কো-অর্ডিনেটর প্রকৌশলী তন্ময় আহমেদ।

jagonews24

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, সরকার ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ বির্নিমাণে প্রকৌশলীদের ভূমিকা অনেক। ‘সেন্টার অব এক্সিলেন্স অন ফোর্থ ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিভোলিউশন’ এবং ‘শেখ হাসিনা ইনস্টিটিউট ফর ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজি’তে কোর্স কারিকুলাম যুগোপযোগী করা এবং প্রশিক্ষণ, গবেষণা ও উদ্ভাবনী কার্যক্রম পরিচালনায় আইইবি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নতজ্ঞাননির্ভর সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলতে একসঙ্গে কাজ করবে আইইবি ও আইসিটি ডিভিশন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইঞ্জিনিয়ার মো. আবদুস সবুর বলেন, আন্তর্জাতিকভাবে ‘ইকোনমিক ডিপ্লোমেসি’র পাশাপাশি ‘সায়েন্স ডিপ্লোমেসি’ ও ‘টেকনোলজি ডিপ্লোমেসি’তেও আমাদের দক্ষতা বাড়াতে হবে। বিজ্ঞান গবেষণায় উন্নত বিশ্বের দেশগুলোর সঙ্গে একত্রে কাজ করতে, নতুন প্রযুক্তি গ্রহণ করতে এবং নিজস্ব প্রযুক্তি সারাবিশ্বে ছড়িয়ে দিতে এই কূটনীতি সামনের দিনগুলোতে শক্তিশালী হাতিয়ার হিসেবে কাজ করবে।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন আইইবির কম্পিউটার ডিভিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মাহফুজুল ইসলাম এবং সেক্রেটারি প্রকৌশলী মো. রনক আহসান।

এইউএ/বিএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]