‘প্রযুক্তি গ্রহণ ও মানবসম্পদ কাজে লাগানো আমাদের চ্যালেঞ্জ’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:২২ পিএম, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১
ফাইল ছবি

প্রযুক্তি গ্রহণ ও মানব সম্পদ কাজে লাগানো আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘এই দুইয়ের ভারসাম্য রক্ষা করতে না পারলে আমাদের জন্য বড় বিপদ অনিবার্য।’

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীতে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস (বিইউপ) আয়োজিত টেকসই উন্নয়নের জন্য তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ আর চতুর্থ শিল্প বিপ্লব এক নয়। আমরা বিশ্বে প্রথম ডিজিটাল বাংলাদেশ বলেছি। এর মানে হচ্ছে শোষণ দারিদ্র্যমুক্ত, প্রযুক্তিনির্ভর উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ তথা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলা। আমাদের আট বছর পর বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরাম প্রধানত শিল্পোন্নত দেশগুলোর মানব সঙ্কট কাটাতে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের কথা বলেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘জাপান সোসাইটি ৫.০ এর কথা বলেছে। জাপান মনে করে সোসাইটি ৫.০ মানবিক আর চতুর্থ শিল্প বিপ্লব যান্ত্রিক। আমাদের চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের প্রযুক্তি ব্যবহার করতে হবে, তবে আমাদের মতো করে। এই বিপ্লব সব দেশের জন্য এক নয়, একই নীতি-কৌশল ও পদ্ধতি সবার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়। তাই অনুকরণ নয় মেধা ও সৃজনশীলতা দিয়ে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ বানাবো।’

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের ধারাবাহিকতায় বিভিন্ন ক্ষেত্রের রূপান্তর জাতীয় জীবনের বিস্ময়কর এক অর্জন। শিক্ষার ক্ষেত্রে সেই তুলনায় ডিজিটাল রূপান্তর না হওয়ায় ডিজিটাল বাংলাদেশের পরিপূর্ণ অর্জন পাওয়া চ্যালেঞ্জিং হয়ে পড়েছে।’

বিইউপির ফ্যাকাল্টি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির ডিন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল গোলাম ফারুকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, বিইউপির উপাচার্য মেজর জেনারেল মো. মোশফেকুর রহমান, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক এম আবুল কাশেম মজুমদার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

আরএমএম/এমএসএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]