সাড়ে ৮ কোটি টাকার বিনিয়োগ পেল বন্ডস্টাইন

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৫৪ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০২১

প্রায় সাড়ে আট কোটি টাকার বিনিয়োগ পেয়েছে ইন্টারনেট অব থিংস (আইওটি) ভিত্তিক দেশীয় প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠান বন্ডস্টাইন। রানার গ্রুপের প্রতিষ্ঠান রানা ট্রেনিং লিমিটেডের নেতৃত্বে বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান বন্ডস্টাইনে এক মিলিয়ন মার্কিন ডলার সমমূল্যের এই বিনিয়োগ করে।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে বন্ডস্টাইনের পক্ষ থেকে।

বন্ডস্টাইনের সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান তথ্য কর্মকর্তা (সিআইও) যাফির শাফিঈ চৌধুরী বলেন, আমাদের লক্ষ্য আগামী ১০ বছরে আঞ্চলিক আইওটি ব্যবসায় নেতৃত্ব দেওয়া। আর সেই লক্ষ্য বাস্তবায়নে বিগত বছরগুলোতে আমরা সফলতার সঙ্গে ব্যবসা করে আসছি। আমাদের লক্ষ্য অর্জনে আরেক ধাপ এগিয়ে গেলাম এই বিনিয়োগ পেয়ে।

তিনি বলেন, এটি দেশের আইওটি খাতে প্রথম কোনো বিনিয়োগ। উদ্ভাবনী সেবায় এই বিনিয়োগের মাধ্যমে আমরা প্রায়োগিক ক্ষেত্রে সাশ্রয়ী মূল্যে নতুন প্রযুক্তি নিয়ে আসতে পারব বলে আশা করছি। প্রাপ্ত বিনিয়োগ ব্যবসা সম্প্রসারণ, নতুন প্রযুক্তির গবেষণা, কাঁচামালের মজুত বৃদ্ধি এবং আইওটি হার্ডওয়্যার উৎপাদন সম্প্রসারণে ব্যয় করার প্রাথমিক পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের।

রানার গ্রুপের চেয়ারম্যান এম হাফিজুর রহমান বন্ডস্টাইনের সফলতা নিয়ে আশা প্রকাশ করে বলেন, বন্ডস্টাইনের প্রযুক্তি উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে সক্ষমতা এবং তা ব্যবহার করে সমস্যা সমাধানের পূর্ব সফলতা রয়েছে। আমাদের অভিজ্ঞতা এবং নেটওয়ার্কের সাহায্যে আমরা এই কোম্পানিকে নতুন উচ্চতায় পৌঁছাতে সাহায্য করতে পারব।

এই বিনিয়োগে পরামর্শক হিসেবে কাজ করে জেড এ ক্যাপিটাল।প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জাহেদুল আরেফিন বলেন, প্রযুক্তিগতভাবে বন্ডস্টাইনের একটি অনন্য স্থান রয়েছে। কোম্পানিটি এখন দ্রুত বড় হবে।

বন্ডস্টাইনের কানেক্টেড ভেইক্যাল সেবা, যা বাজারে ভেইক্যাল ট্র্যাকিং নামে বেশি পরিচিত, গ্রাহকদের পরিবহনকে দূর থেকে নজরে রাখার সুবিধা করে দিচ্ছে। একই সঙ্গে চুরির ক্ষেত্রে তাদের পুনরুদ্ধারেও সাহায্য করছে। এছাড়াও পরিবহন খরচ বাঁচানো এবং অত্যাধুনিক ড্রাইভিং প্যাটার্ন মডেলের মাধ্যমে রাস্তাঘাটে দুর্ঘটনা প্রতিরোধে সাহায্য করছে তাদের এই প্রযুক্তি।

বন্ডস্টাইন বর্তমানে পাঁচ শতাধিক এন্টারপ্রাইজ গ্রাহকদের সেবা দিচ্ছে এবং তাদের প্রায় চার কোটি ট্রিপ রিয়েল টাইম পর্যবেক্ষণ করছে। বন্ডস্টাইনের প্রোপাইটেরি আইওটি ক্লাউড, যেকোনো আইওটি হার্ডওয়্যারের সঙ্গে কাজ করে এবং বর্তমানে প্রতি মাসে প্রায় পঁচিশ কোটি ডেটা রিয়েল টাইম প্রসেস করে। বর্তমানে আইওটি খাতে নিজেদের নেতৃত্বস্থানীয় সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে অবস্থান করেছে বন্ডস্টাইন।

আইওটি ক্লাউডের ওপর ভিত্তি করে বন্ডস্টাইনের পাওয়ার মনিটরিং সেবা বর্তমানে এক হাজারের বেশি টেলিকম টাওয়ারে ব্যবহৃত হচ্ছে। আইওটি বা সংযুক্ত সেবা ভবিষ্যতের ডিজিটাল লাইফস্টাইলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এই লক্ষ্যে বন্ডস্টাইন স্মার্ট হোম সল্যুশন- বন্ডের কার্যক্রম শুরু করেছে।

যখন প্রশ্নপত্র ফাঁস বাংলাদেশের জন্য এক বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছিল, বন্ডস্টাইন তখন আইওটিভিত্তিক স্মার্টবক্সের মাধ্যমে এই সমস্যার সমাধান নিয়ে আসে। মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় পরপর পাঁচ বছর ব্যবহার করার পর, বর্তমানে এই সেবা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং গুচ্ছভিত্তিক ভর্তি পরীক্ষাতেও ব্যবহৃত হচ্ছে। এই প্রশ্ন ফাঁসরোধমূলক প্রযুক্তি দেশব্যাপী ব্যাপক প্রশংসিত হয়। এছাড়া বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম টেলিকম অপারেটর রবির সঙ্গে বন্ডস্টাইনের রয়েছে দীর্ঘমেয়াদি চুক্তি।

ব্যবসার পাশাপাশি দেশীয় আইওটি খাতের সম্ভাবনাকে বৈদেশিক পর্যায়েও ছড়িয়ে দিয়েছে বন্ডস্টাইন। ২০২০ সালে বন্ডস্টাইন অর্জন করে জাতীয় আইসিটি অ্যাওয়ার্ড। ২০১৯ এবং ২০২০ পরপর দুই বছর বেসিস ন্যাশনাল আইসিটি অ্যাওয়ার্ডে পুরস্কৃত করা হয় তাদের।

এশেলন সিঙ্গাপুর থেকে ২০১৫ সালে বন্ডস্টাইনকে টপ ১০০ স্টার্টআপ হিসেবে সম্মাননা দেওয়া হয়। এছাড়াও ২০১৯ সালে ভিয়েতনামে অনুষ্ঠিত এশিয়া প্যাসিফিক আইসিটি অ্যাওয়ার্ড এ আইওটি চ্যাম্পিয়ন হয় বন্ডস্টাইন। বন্ডস্টাইন আইএসও ৯০০১:২০১৫ সনদপ্রাপ্ত কোম্পানি। অত্যাধুনিক আইওটি সংযোজন ইউনিট প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সম্প্রতি গাজীপুরে অবস্থিত দেশের প্রথম হাইটেক পার্কেও বিনিয়োগ করে তারা। বর্তমানে বন্ডস্টাইন কুয়েত এবং নেপালে আইওটি প্রযুক্তি সেবা রপ্তানি করছে।

এইচএস/এমআরএম/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]