গেমারদের মন জয় করেছে ইনফিনিক্স নোট ১১ প্রো

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:২৮ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০২১

ইনফিনিক্স নোট ১১ প্রো স্মার্টফোনে ইচ্ছেমতো গেমিংয়ের অভিজ্ঞতা পাবেন গেমাররা। নান্দনিক ডিজাইনের এই স্মার্টফোনে রয়েছে হেলিও জি৯৬ পাওয়ার প্রসেসর। ডিভাইসটিতে ফ্রি-ফায়ার, পাবজি, কোডেমসহ জনপ্রিয় সব গেম খেলা যাবে।

গেমিং প্রসেসর

ইনফিনিক্সের নোট ১১ প্রো স্মার্টফোনে মিডিয়াটেকের নতুন হেলিও জি৯৬ আল্ট্রা-গেমিং অক্টা-কোর প্রসেসর রয়েছে। এটির পারফরম্যান্স সর্বোচ্চ ২.০৫ গিগাহার্টজ পর্যন্ত।

এই মোবাইল সেটে রয়েছে নতুন হেলিও জি৯৬ ফিচারের দুটি আর্ম কর্টেক্স-এ৭৬ এবং ছয়টি এ৫৫ প্রসেসর নেক্সট-লেভেল ইন্টেলিজেন্স। মিডিয়াটেক হেলিও জি৯৬ চিপসেট স্মার্টফোনে এমনভাবেই ডিজাইন করা হয়েছে যাতে এটি সর্বোচ্চ ৪জি গেমিং অভিজ্ঞতা দিতে পারে। এই স্মার্টফোনে আরও রয়েছে- মালি-জি৫৭ গ্রাফিক্স প্রসেসিং ইউনিট (জিপিইউ) এবং এর ফলে কোনো রকম বিঘ্ন ছাড়াই গ্রাহকরা কার্যকরী গ্রাফিক্স পারফরম্যান্স পেতে পারছেন। নোট ১১ প্রোতে আরও রয়েছে মিডিয়াটেক হাইপার ইঞ্জিন ২.০ লাইট টেকনোলজি।

ডিসপ্লে

নোট ১১ প্রোতে রয়েছে একটি সমন্বিত ভিজুয়াল থিম। ডিভাইসটির ৬ দশমিক ৯৬” ডিসপ্লে শুধু দেখতে বড়ই নয় এবং এটি টিইউভি রেইনল্যান্ড লো ব্লু লাইট সার্টিফিকেশন প্রাপ্ত। ১২০হার্টজ আল্ট্রা স্মুথ প্যানেলও স্মার্টফোনটির বিশেষ সংযোজন।

ডিভাইসে যথাযথ ফিঙ্গার রিকগনিশন সিস্টেম থাকায় ব্যবহারকারীরা গেমিং বা দ্রুত কাজ করার ক্ষেত্রে বাধার মুখে পড়বেন না। এই স্মার্টফোনের টাচ স্যাম্পল রেট সর্বোচ্চ ১৮০ হার্টজ। আরও রয়েছে বর্ধিত ইমেজ স্ট্যাবেলিটি, এতে হাই-স্পিড মুভি ও স্ক্রিন সোয়াপও করা যায় স্বাচ্ছন্দ্যে।

ক্যামেরা

ইনফিনিক্স নোট ১১ প্রোতে রয়েছে ৩০এক্স ডিজিটাল জুমের ট্রিপল ক্যামেরা, ৬৪ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-নাইট মেইন লেন্স (এফ/১.৭ অ্যাপার্চার), ১৩ মেগাপিক্সেল টেলিফটো লেন্স (এফ/২.৪৬ অ্যাপার্চার) এবং ২ মেগাপিক্সেল বোকেহ লেন্স (এফ/২.৪ এপার্চার)। এছাড়া রয়েছে অটো ফোকাস সুবিধা সম্বলিত ফ্রন্ট ফেসিং ১৬ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা।

ব্যাটারি

ফ্ল্যাগশিপ এই স্মার্টফোনে রয়েছে ৫ হাজার এমএএইচ ব্যাটারি। ৩৩ ওয়াট র্যাপিড চার্জ সক্ষমতা। ফলে ইচ্ছেমতো সারাদিন নোট ১১ প্রো ব্যবহার করতে পারেন ব্যবহারকারীরা।

স্টোরেজ

ইনফিনিক্স নোট ১১ প্রোতে রয়েছে বর্ধিত র্যাম টেকনোলজি। তাই মোবাইল ফোনের র্যাম ৮ জিবি থেকে ১১ জিবি অর্থাৎ ৩ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো সম্ভব। তাই একইসঙ্গে অনেক অ্যাপের ব্যবহার ও পারফরম্যান্স বুস্ট করার অপশন রয়েছে ডিভাইসটিতে। এই স্মার্টফোনে আরও রয়েছে ১২৮ জিবি রম, যেটি ২ টেরাবাইট পর্যন্ত বাড়ানো সম্ভব।

ডিজাইন

‘মিথ্রিল গ্রে এবং হেজ গ্রিন’ এই দুই রঙে ডিভাইসটি পাওয়া যাচ্ছে। ইনফিনিক্স নোট ১১ প্রোর ওজন ২০৯ গ্রাম এবং এটি দেই হাতেই সমানভাবে ব্যবহার করা যাচ্ছে।

স্মার্টফোনটিতে ডিজিটাল থিয়েটার সিস্টেমস (ডিটিএস) থাকায় চারপাশের সাউন্ড ভারসাম্যপূর্ণভাবে শোনা যায়। এছাড়া ডিভাইসের শীর্ষে ও নিচে আছে সিনেম্যাটিক ডুয়েল স্পিকার। এটির থ্রিডি ৯-লেয়ার গ্রাফিক লাইন নোট ১১ প্রোকে কার্যকরভাবে বিভিন্ন তাপমাত্রায় নিরাপদ রাখে। ফলে ফোনটি ওভারহিটিং থেকে রক্ষা পায় ও অসাধারণ পারফরম্যান্স দেখাতে পারে।

দাম

স্মার্টফোনটি ক্রেতারা ২১ হাজার ৪৯০ টাকায় সারাদেশের রিটেইল ও ব্র্যান্ড স্টোর থেকে কিনতে পারবেন।

আইএইচআর/জেডএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]