ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবসে থাকছে যেসব আয়োজন

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:১৭ পিএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

এবার ডিজিটাল বাংলাদেশ, ২০২১ দিবস উপলক্ষে নানা আয়োজন হাতে নেওয়া হয়েছে। গত পাঁচ বছর ধরে এ দিবসটি পালন করা হলেও ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ঘোষণার ১২ বছর উপলক্ষে ব্যাপক পরিসরে বিভিন্ন অনুষ্ঠান হাতে নেওয়া হয়েছে। রোববার (১২ ডিসেম্বর) এ দিবসটি পালন করা হবে। ‘ডিজিটাল বাংলাদেশের অর্জন, উপকৃত সব জনগণ’- এ প্রতিপাদ্য নিয়ে এবার দিবসটি পালন করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (৯ ডিসেম্বর) রাজধানীর আইসিটি ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তথ্য ও যোগাযোগ বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, অনুষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে ১২ ডিসেম্বর রোববার সকাল সাতটায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন। সকাল আটটায় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে বর্ণাঢ্য র্যালির আয়োজন করা হবে। সকাল ১০টায় উদ্বোধনী ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত থাকবেন। আর বিকেল তিনটায় ‘ডিজিটাল বাংলাদেশের অর্জন, উপকৃত সকল জনগণ’ বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। এটি অনুষ্ঠিত হবে বঙ্গবন্ধু আন্তজার্তিক সম্মেলন কেন্দ্রে। বিকেল তিনটায় রাজধানীর বাড্ডার মাদানী এভিনিউ এ ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মাঠে ডিজিটাল বাংলাদেশ কনসার্টের আয়োজন করা হয়েছে।

এছাড়া স্ব স্ব বিভাগ, মন্ত্রণালয়, দপ্তর সেমিনার, আলোচনা এবং কর্মশালার আয়োজন করবে। বাংলাদেশের যেসব দূতাবাস আছে তাদের সময় এবং সুযোগ মতো এবিষয়ে অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে। মাঠ পর্যায়ে স্ব স্ব কার্যালয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হবে।

সকাল দশটার মূল অনুষ্ঠান মাঠ পর্যায়ের সুবিধাজনক স্থান থেকে সরাসরি সম্প্রচার করবে। শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব, ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার, পৌরসভা ডিজিটাল সেন্টার থেকেও সকাল দশটার অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার করবে। ঢাকার পাশাপাশি সাতটি বিভাগীয় শহরেও কনসার্টের আয়োজন করা হয়েছে।

এছাড়া জেলা পর্যায়ের সেমিনার, রচনা প্রতিযোগিতা, প্রেজেন্টেশন, বেসিক প্রোগ্রামিং, আবৃত্তি এবং উপস্থিত বক্তৃতার কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, আইসিটি খাতে অবদান রাখার জন্য ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকেও পুরস্কৃত করা হবে। সরকারি এবং বেসরকারি আলাদাভাবে তিনটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেওয়া হবে। জাতীয় পর্যায়ে এবং স্থানীয় পর্যায়ে মোট চব্বিশটি পুরস্কার দেওয়া হবে।

এ সময় তথ্য ও যোগাযোগ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. রেজাউল মাকছুদ জাহেদী, হাইটেক পার্ক অথরিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. বিকর্ণ কুমার ঘোষ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় বর্তমান সরকারের নির্বাচনী ইশতেহারে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ বিনির্মাণের ঘোষণা ছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০৮ সালের ১২ ডিসেম্বর ঘোষিত সে নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী ক্ষমতায় এসে সরকার দেশের বিভিন্ন হাইটেক পার্ক, সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক, আইটি সেন্টার নির্মাণের উদ্যোগ নেয়। এজন্য গত পাঁচবছর ধরে প্রতিবছর ১২ ডিসেম্বর ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস পালন করে আসছে। এ বছর ডিজিটাল বাংলাদেশ ঘোষণার ১২ বছর পূর্ণ হবে।

এইচএস/এমএএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]