আজকের এই দিনে : ১৯ এপ্রিল ২০১৯

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:৫৯ এএম, ১৯ এপ্রিল ২০১৯

১২৩৬ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে দিল্লীর সম্রাট ইলতুৎমিশের ইন্তেকাল।

১৩২০ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে পর্তুগালের রাজা প্রথম পেদ্রোর জন্ম

১৩৯০ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে স্কটল্যান্ডের রাজা দ্বিতীয় রবার্টের মৃত্যু

১৪৫১ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে দিলি্লর বাদশাহ আলম শাহ সিংহাসন ছেড়ে দেন

১৫৩৯ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে জার্মান সম্রাট চার্লস ফ্রাঙ্কফুর্টের সঙ্গে শান্তিচুক্তি করেন

১৭৭২ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে ব্রিটিশ অর্থনীতিবিদ ডেভিড রিকার্ডোর জন্ম।

১৭৮২ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে নেদারল্যান্ডস যুক্তরাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দেয়

১৮০৭ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে ব্রিটিশ বাহিনী মিশরের আলেক্সান্ড্রিয়া থেকে পিছু হটে এবং মিশরের কাছে পরাজিত হয়।

১৮২৪ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে ইংরেজ কবি জর্জ বায়রনের মৃত্যু।

১৮৩৪ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে বেঙ্গল চেম্বার অব কমার্স প্রতিষ্ঠিত হয়।

১৮৫৮ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে অস্ট্র্রেলিয়ার ব্যাটসম্যান ম্যাকসেন জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ৩টি টেস্ট খেলেন।

১৮৬১ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে বাল্টিমোরের দাঙ্গায় পুলিশসহ ১৩ জন নিহত

১৮৮২ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে বিজ্ঞানী চার্লস ডারউইনের মৃত্যু।

১৯০৬ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে ফরাসী পদার্থবিদ পিয়েরে কুরি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন।

১৯৫১ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে অদ্বৈত মল্লবর্মণ মৃত্যুবরণ করেন।

১৯৫৫ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যান ডোনাল্ড ডিন্স মৃত্যুবরণ করেন। তিনি ৩টি টেস্ট খেলেন।

১৯৭১ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে সাহিত্যিক নরেন্দ্র দেবের মৃত্যু।

১৯৭১ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে ভারতীয় ব্যাটসম্যান সুনীল গাভাস্কার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২২০ রান করেন।

১৯৭২খ্রিস্টাব্দের এই দিনে বাংলাদেশ কমনওয়েলথের সদস্যপদে অন্তর্ভুক্ত হয়।

১৯৭৫ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে ভারতের প্রথম উপগ্রহ আর্যভট্ট মহাকাশে উৎক্ষিপ্ত হয়।

১৯৯৩ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই-এর আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের হামলায় ড্যাভিডিয়ানস নামের এক ধর্মীয় সম্প্রদায়ের শিশু, নারীসহ প্রায় ৮০ জন সদস্য নিহত হয়।

১৯৯৮ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে মেক্সিকান কবি অক্টাভিও পাজের মৃত্যু।

২০০৫ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে পোপ দ্বিতীয় জন পলের মুত্যুর পর ষোড়শ বেনেডিক্ট ক্যাথলিক খ্রিস্টানদের নতুন ধর্মগুরু নির্বাচিত হন।

এইচআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :