একটি মোটরসাইকেলের দাম ৩২ লাখ টাকা!

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:১৭ পিএম, ২৬ নভেম্বর ২০১৯

একটি মোটরসাইকেলের দাম ৩২ লাখ টাকা- গ্রুপের কেউ একজন এ কথা বলতেই সবাই ঘুরে দাঁড়িয়ে বললো, কী? এত দাম! কী মোটরসাইকেল ভাই? একজন মোটরসাইকেলের পেছনে গিয়ে সাইনবোর্ড দেখে বলল, ‘বিএমডব্লিউ মোটরসাইকেল, তাই এত দাম।’

আমরা উঠেছি ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালের পাশের একটি হোটেলে। পরিকল্পনা ছিল পাতায়া থেকে এসে পরদিন ভোরে সবাই সাফারি ওয়ার্ল্ডে যাবে। কিন্তু সারা রাত জেগে থেকে ব্যাংককের রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে ক্লান্ত-পরিশ্রান্ত সবাই ঘুমিয়ে পড়ে। ফলে সাফারি ওয়ার্ল্ডে আর যাওয়া হয়নি।

Fruits

সকালে উঠে কয়েকজন মিলে ২৬ থাইবাত দিয়ে স্কাই ট্রেনে চেপে শিয়াম প্যারাগন মার্কেটে নামলাম। নান্দনিক এই মার্কেটে চোখে পড়ে সেই বিএমডব্লিউ মোটরসাইকেলটি।

একটু এগোতে চোখে পড়ে বিএমডব্লিউ ও রোলস রয়েসসহ বিশ্বখ্যাত বিভিন্ন নামি দামি গাড়ির শোরুম। এ মার্কেটটিতে শুধু গাড়ি নয়, বিশ্বের বড় বড় নামি দামি ব্র্যান্ডের বিভিন্ন পণ্যের দেখা মেলে। সেখান থেকে স্কাই ট্রেনে টিকিট কেটে আবার ৩৬ বাথে চাতুচক উইকেন্ড মার্কেটের পথে যাত্রা করি। এখানে আসার কারণ, একসঙ্গে ৮ হাজার দোকান দেখার সুযোগ। কিন্তু বিধি বাম!

Fruits

স্কাই ট্রেন থেকে হাঁটা দূরত্বে চাতুচক উইকেন্ড মার্কেট। কিন্তু সামনে যেতেই বুঝতে বাকি রইল না আজ মার্কেট বন্ধ। সবার মন খারাপ। এমনিতেই সময় কম। তাই মার্কেট বন্ধ থাকায় সব পরিকল্পনা ভেস্তে যাওয়ার উপক্রম। একে তো মার্কেট বন্ধ, তার ওপর রাস্তার ভ্যানগাড়িতে কেচো ও মৌমাছিসহ বিভিন্ন পোকামাকড় ও শূকর-কুকুরের মাংস ভাজার উৎকট গন্ধে দম বন্ধ হওয়ার অবস্থা।

মেজাজ যখন খারাপ দেখি তখন ভ্যানগাড়িতে বিক্রি করা কাঁচা-পাকা আম, তরমুজ, পেঁপে ও পেয়ারার অমৃত স্বাদ নিয়ে মাথা ঠান্ডা করি। ব্যাংককে এলাকাভেদে ফলমূলসহ সব পণ্যের দামের তারতম্য লক্ষ করা যায়। গত রাতে ব্যাংককের রাস্তায় যে ফল ৪০ বাথে কিনে খেয়েছি, সেটা এখানে এসে ২০ বাথে পাওয়া গেল।

Fruits

অতঃপর টেক্সি ক্যাব ভাড়া নিয়ে গতকালের সেই সেন্ট্রাল প্লাজা মার্কেটের উদ্দেশ্যে যাত্রা। ভ্রমণে এসে একসঙ্গে হোটেল থেকে বেরিয়ে কিছু দূর যাওয়ার পরই কী করে যেন একে একে সবাই দলছুট হয়ে যায়। পছন্দের ভিন্নতার কারণে একেকজন একেক পণ্য দেখতে গিয়ে দল বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।

চলবে...

এমইউ/এমএসএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]