নান্দনিক ব্রিজের শহরে একদিন

ভ্রমণ ডেস্ক
ভ্রমণ ডেস্ক ভ্রমণ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:০০ পিএম, ০৮ নভেম্বর ২০২০

মাহফুজা বিউটি

আজ সারাদিন শরীর ভালো নেই। তাই মনটাও ভালো নেই। খুব মনে পড়ছে ক্যালিফোর্নিয়ার খুব আরামদায়ক আবহাওয়া আর অসাধারণ সুন্দর প্রকৃতির কথা। মনে হচ্ছে ফিরে যাই সেখানে। আমি সানফ্রান্সিসকো ঘুরতে গিয়েছি। এটা আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের একটি শহর। এটি ক্যালিফোর্নিয়ার সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ শহরের একটি। স্যাকরেমেনটো থেকে যে রাস্তা দিয়ে আমি যাচ্ছিলাম, সেটা হাইওয়ে না।

এটি ডেলটা এরিয়ার পাশ দিয়ে একটি চমৎকার রাস্তা। অসম্ভব সুন্দর প্রকৃতি চারপাশে আর খুব সুন্দর আবহাওয়ায় আপনার মনে হবে এখানেই থেকে যাই সারাজীবন। আমার বন্ধুরা সবাই আমেরিকান আর্টিস্ট। তারা জানেন কোন রাস্তায় গেলে আমি খুব সুন্দর প্রকৃতি দেখতে পাবো। তাই তারা আমাকে এ রাস্তায় সানফ্রান্সিসকো শহরে যেতে বলেছেন। পৃথিবীর যে দেশের শিল্পীদের সাথে আমি মিশেছি বা কথা বলেছি তারা সবাই কম-বেশি প্রকৃতি প্রেমিক বা প্রকৃতির পূজারী।

প্রথমে পার হলাম রিওভিসতা শহর। রিওভিসতা মানে রিভার ভিউ। নদী দিয়ে ঘেরা এ ছোট্ট শহর। এ শহরের পাশ দিয়ে পার হলাম এন্টিয়োক। তারপর প্লিসেন্টহিল, তারপর ওরিন্ডা টাওন পার হয়ে পৌঁছাতে হয় সানফ্রান্সিসকো শহরে। ওরিন্ডা টাউন দেখে আমার বন্ধু ওরিন্ডার কথা মনে হলো। আমি হাসলাম। কারণ ওরিন্ডা আমার আমেরিকান আর্টিস্ট বন্ধু।

jagonews24

ইয়ারবা বুয়েনা টানেল পার হয়ে সানফ্রান্সিসকো অকল্যান্ড বে ব্রিজ। অসাধারণ সুন্দর এ ব্রীজ প্রায় সাত হাজার একশ আশি মাইল দীর্ঘ আর প্রস্থে প্রায় আঠারো মাইল। এ ব্রিজ ১২ নভেম্বর ১৯৩৬ সালে উদ্বোধন করা হয়। দু’পাশে অনিন্দ্য সুন্দর প্রশান্ত মহাসাগরের মনোরম দৃশ্য। মনে হবে নীল জলরাশির ভেতর দিয়ে আপনি যাচ্ছেন। আমার মনে হচ্ছিল, ব্রিজে দাঁড়িয়ে একটু দু’পাশের দৃশ্য দেখি।

সানফ্রান্সিসকো হচ্ছে অনেকগুলো ব্রিজের শহর। এ শহরে অনেকগুলো সুন্দর সুন্দর ব্রিজ আছে। আমি সানফ্রান্সিসকো শহরে পৌঁছলে কিছুক্ষণ ঘুরলাম। পোর্ট অব সানফ্রান্সিসকো দেখলাম আর দেখলাম সানফ্রান্সিসকোতে আর্ট ইনস্টিটিউট। এখানে ঘুরে দেখার মতো অনেক কিছুই আছে। আছে সানফ্রান্সিসকো মিউজিয়াম অব মডার্ন আর্ট, গোল্ডেন গেট পার্ক, প্যালেস অব ফাইন আর্টস, এশিয়ান আর্ট মিউজিয়াম, চায়না টাউন, আরও অনেক কিছু দেখার আছে।

আমার হাতে সময় কম। তাই রওনা হলাম সানফ্রান্সিসকো শহরের প্রধান আকর্ষণ গোল্ডেন গেট ব্রিজ দেখতে। এটা সানফ্রান্সিসকো শহরের প্রতীক। গোল্ডেন গেট ব্রিজ বললে সবাই সানফ্রান্সিসকো শহরকে বোঝেন। প্রতিবছর এ ব্রিজ দেখতে প্রায় দশ মিলিয়ন মানুষ পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সানফ্রান্সিসকোতে আসে। এ ব্রিজ ৮৯৮০ ফুট দীর্ঘ আর প্রস্থে প্রায় এক মাইল। ১৯৩৭ সালের ২৭ মে এ ব্রিজের উদ্বোধন করা হয়।

আমি চিত্রশিল্পী বলে নিজেকে খুব ভাগ্যবান ভাবছি। কারণ আমেরিকার মতো দেশে এত ঘুরতে পারতাম না। যদি না ক্যালিফোর্নিয়ার লসএনজেলসে আমার চিত্রপ্রদর্শনী না থাকতো। আমি আর্টিস্ট আর একজিবিশনে আমার কাজ আছে। তা বলেই খুব তাড়াতাড়ি ভিসা পেয়েছিলাম। তাই এ সবকিছুই দেখতে পাচ্ছি।

jagonews24

অসাধারণ এ ব্রিজের সৌন্দর্যে মোহিত হয়ে আপনি গাড়ি দাঁড় করিয়ে দেখতে থাকবেন, তা হবে না। তাহলে পুলিশ আপনাকে থানায় নিয়ে যাবে। এটা বাংলাদেশ নয়, রাস্তায় ট্রাফিক জ্যাম বানিয়ে আপনি কোথাও দাঁড়িয়ে পড়তে পারবেন না। এত সুন্দর জায়গা কিন্তু আপনাকে তার সৌন্দর্য দেখার জন্য নির্ধারিত স্থানে যেতে হবে। ক্যালিফোর্নিয়ায় একে বলে ভিসতা পয়েন্ট, মানে ভিউ পয়েন্ট। ভিসতা হচ্ছে স্প্যানিস শব্দ।

আমি যথারীতি গোল্ডেন গেট ব্রিজ ভিসতা পয়েন্টে গেলাম। অসাধারণ সুন্দর জায়গা। একপাশে প্রশান্ত মহাসাগরের নীল জলরাশি আর অন্যদিকে গোল্ডেন গেট ব্রিজ। হাজারও মানুষ দাঁড়িয়ে আছে তার সৌন্দর্য দেখার জন্য। আমি এক চাইনিজ কাপলকে বললাম আমার কিছু ছবি তুলে দিতে। আর নিজে কিছু সেলফি তুললাম। ততক্ষণে সন্ধ্যা নেমে এসেছে। তাই আমি ফিরে আসার জন্য পা বাড়ালাম।

আমার মতো কেউ যদি সানফ্রান্সিসকো বেড়াতে যান, আমি তাদের বলবো সানফ্রান্সিসকো শহরে যদি একরাত হোটেলে কাটাতে পারেন। তাহলে এ শহরের প্রতিটি দর্শনীয় স্থান দেখতে পারবেন। তবে অবশ্যই আপনার অনেক ডলার খরচ করতে হবে। কারণ এ শহরে থাকা-খাওয়ার অনেক খরচ।

আমি ফিরে এলাম নিজের গন্তব্যের দিকে। পেছনে রইল অসাধারণ কিছু মুহূর্ত। আমার অনেক টাকা-পয়সা থাকলে হয়তো পরিবারের সাথে যেতে পারতাম অথবা আমার ছেলেকে নিয়ে যেতে পারলে অনেক ভালো লাগতো। তবুও নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি, একজন শিল্পী বলে আমার হাতে যে সুযোগ এসেছে; তা সাধারণ মানুষের জন্য কঠিন। তবে হাতে টাকা থাকলে সবই সম্ভব।

লেখক: চিত্রশিল্পী।

এসইউ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]