নারীরা অনিরাপত্তার বেড়াজাল থেকে নিজেকে মুক্ত করতে পারছেন না

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৫৩ পিএম, ১১ আগস্ট ২০২০

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ ঢাকা মহানগর শাখার আন্দোলন উপপরিষদ এর উদ্যোগে আয়োজিত ‘কোভিড-১৯ : গৃহবন্দি নারী ও কন্যার মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা ও করণীয়’ শীর্ষক এক অনলাইন ভিত্তিক সচেতনতামূলক কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ ঢাকা মহানগর শাখার সভাপতি মাহতাবুননেসা। সোমবারের ওই অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন ঢাকা মহানগর কমিটির আন্দোলন সম্পাদক জুয়েলা জেবুননেসা খান।

ঢাকা মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক রেহানা ইউনুস তার স্বাগত বক্তব্যে বলেন, আজ আমরা যে প্লাটফর্ম থেকে অংশ নিচ্ছি, এ প্লাটফর্ম দীর্ঘ ৫০ বছর যাবত নারী ও কন্যাশিশুর নিরাপত্তা নিশ্চিত করে একটি নির্যাতনহীন, গণতান্ত্রিক, মানবিক সমাজগঠনে নারীর সার্বিক শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিষয়ে সুচিন্তিত কর্মসূচির মাধ্যমে আন্দোলন করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, নারীরা শিক্ষিত হচ্ছে কিন্তু অনিরাপত্তার বেড়াজাল থেকে নিজেকে মুক্ত করতে পারছে না। পরিবারের নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি নারীকে মানুষ হিসেবে বিবেচনা করছে না। দীর্ঘ লকডাউন, সামাজিক দূরত্ব, স্থান পরিবর্তন, অনিরাপত্তা, দুঃশ্চিন্তার ফলে মানুষের মধ্যে সামাজিক অস্থিরতা ও মানসিক বিষণ্নতা সৃষ্টি করেছে। আমি আজ আপনাদেরকে সহমর্মিতার মনের জানালা খুলে দেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ ঢাকা মহানগর আওতাভুক্ত পাড়া কমিটি থেকে গৃহবন্দি নারী ও কন্যার মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা বিষয়ক প্রাপ্ত প্রশ্নাবলির আলোকে পরামর্শ ও করণীয় বিষয়ে নির্দশনা প্রদান করেন স্বনামধন্য কাউন্সেলিং সাইকোলজিস্ট নুজহাত ই রহমান।

তিনি বলেন, আমাদের সবাইকে সকলের নিকটবর্তী হতে হবে, নিজেকে সময় দিতে হবে, নিজের ইচ্ছাকে প্রাধান্য দিতে হবে। নিজের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে হবে। তিনি স্বতঃস্ফূর্তভাবে ২০টি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে উপস্থিত সকলের মানসিক শক্তিকে উজ্জীবিত করেছেন।

অতীব জরুরি বিবেচনায় সচেতনতা বিষয়ক এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফওজিয়া মোসলেমসহ অন্যান্য নেতারা। ঢাকা মহানগর কার্যকরী কমিটির সংগঠক, পাড়া কমিটির সংগঠক-সদস্যরা। প্রায় ২ ঘণ্টা ১৬ মিনিট ব্যাপী এ অনুষ্ঠানটি লাইভ ছিল।

সভাপতি মাহতাবুননেসার সমাপ্তি বক্তব্যের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানটি শেষ হয়। বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ ঢাকা মহানগর ও পাড়া কমিটির প্রায় ১৫০ জন সংগঠক-সদস্যরা এবং সুদূর অস্ট্রেলিয়া, লন্ডন এবং কানাডা প্রবাসীরা অন-লাইনে যুক্ত হয়েছিলেন। তারা মানসিক সমস্যা সম্পর্কে সচেতনতামূলক নির্দশনা পেয়ে উপকৃত হয়েছেন বলে, ঢাকা মহানগর কমিটিকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

এসএইচএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]