রাজনীতি

অলির সঙ্গে মতবিরোধে দল ছাড়লেন তিন নেতা

লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি- এলডিপি চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত অলি আহমেদের সঙ্গে মতবিরোধের জেরে পদত্যাগ করেছেন দলটির তিন নেতা। তবে সংগঠনটির এক নেতার দাবি, মতবিরোধ নয়, শারীরিক অসুস্থতার কারণে তারা পদত্যাগ করেছেন।

জানা যায়, দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল করিম আব্বাসী, মো. আবদুল্লাহ ও মো. আবদুল গণি গতকাল মঙ্গলবার এলডিপি চেয়ারম্যান বরাবর পদত্যাগপত্র জমা দেন। তারা একাধিকবার বিএনপি থেকে মনোনীত হয়ে সংসদ সদস্যও নির্বাচিত হন।

পদত্যাগের কথা স্বীকার করে নেত্রকোনা থেকে নির্বাচিত তিনবারের সাবেক সংসদ সদস্য আবদুল করিম আব্বাসী জাগো নিউজকে বলেন, ‘হ্যাঁ, আমিসহ আরও দুই নেতা এলডিপি থেকে পদত্যাগ করেছি। গতকাল মঙ্গলবার চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত চিঠির মাধ্যমে আমরা এলডিপির সব পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছি।’

পদত্যাগকারী এলডিপির অপর দুই নেতা হলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক আব্দুল্লাহ ও আবদুল গণি- যোগ করেন তিনি। কী কারণে এলডিপি ছাড়লেন- জানতে চাইলে আবদুল করিম আব্বাসী বলেন, একটি দল ছাড়তে তো অনেক কারণ থাকে। সব কথা তো বলা যায় না। তবে দল পরিচালনায় কর্নেল অলির অগণতান্ত্রিক (স্বৈরাচারী) ব্যবস্থাও দল ছাড়ার অন্যতম কারণ। তাছাড়া এলডিপিতে আমরা ছিলাম সিনিয়র সদস্য (নেতা)। আমিসহ পদত্যাগী অন্য দুজনও সিনিয়র নেতা, ভাইস চেয়ারম্যান। আমরা বারবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছি।

‘আমি নিজে তিনবার সংসদ সদস্য ছিলাম। ছিলাম সংসদের হুইপও। অথচ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমাদের কাউকে দলের মনোনয়ন দেয়া হয়নি। তারা কয়েকজন মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচন করেছেন। এসবও দল ছাড়ার অন্যতম কারণ।’

তবে এ বিষয়ে এলডিপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিম বলেন, উনারা গত নির্বাচনে দলের মনোনয়ন না পেয়ে অনেকটা নিষ্ক্রিয় ছিলেন। দলেও উনাদের বড় কোনো ভূমিকা ছিল না। উনারা পদত্যাগ করলে এলডিপির কোনো অসুবিধা নেই।

কেএইচ/এমএআর/এমকেএইচ