আন্তর্জাতিক

পূর্বানুমানের চেয়ে ভয়াবহ হবে ইউরোপের মন্দা

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে ইউরোজোনের (যেসব দেশ মুদ্রা হিসেবে ইউরো গ্রহণ করেছে) অর্থনৈতিক ক্ষতি পূর্বানুমানের চেয়ে আরও বেশি হবে বলে জানিয়েছে ইউরোপীয় কমিশন (ইসি)। তবে সামাজিক দূরত্ববিধি অব্যাহত রেখে নেয়া আর্থিক নীতি অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে সহায়তা করবে বলেও জানিয়েছে তারা।

ইসি বলছে, মহামারির কারণে চলতি বছরে ইউরোজোনের অর্থনীতি ৮ দশমিক ৭ শতাংশ সংকুচিত হবে এবং ২০২১ সালে বাড়বে ৬ দশমিক ১ শতাংশ। এর আগে, গত মে মাসে এ বছর ৭ দশমিক ৭ শতাংশ সংকোচন এবং আগামী বছর ৬ দশমিক ৩ শতাংশ বৃদ্ধির পূর্বাভাস দিয়েছিল তারা।

যুক্তরাষ্ট্রে নতুন করে সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণে সৃষ্ট উদ্বেগ এবং ইউরোপের বেশ কিছু অঞ্চলে লকডাউন তুলতে বিলম্ব হওয়ার জেরে আগের ধারণা পরিবর্তন করেছে কমিশন।

ইসির নতুন পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মহামারির কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে ফ্রান্স, ইতালি ও স্পেন। এদের প্রতিটি দেশের অর্থনীতি চলতি বছর ১০ শতাংশ সংকুচিত হতে পারে।

করোনায় কিছুটা কম ভুক্তভোগী জার্মানির অর্থনীতি সংকুচিত হবে ৬ দশমিক ৩ শতাংশ। মে মাসের পূর্বাভাসে এর পরিমাণ ধরা হয়েছিল ৬ দশমিক ৫ শতাংশ।

ভালদিস দমব্রভস্কিসের কমিশন এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘অর্থনীতির ওপর লকডাউনের প্রভাব আমরা যা ধারণা করেছিলাম, তার চেয়ে ভয়াবহ হবে। আমরা ঝড়ের মধ্যে চলছি এবং সংক্রমণের আরও একটি বড় ঢেউসহ অনেকগুলো ঝুঁকির মুখোমুখি হচ্ছি।’

ইউরোপে বেকারত্ব ও শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলোর আর্থিক অস্বচ্ছলতা বৃদ্ধি এবং ইইউ-যুক্তরাজ্য ব্রেক্সিট বাণিজ্য চুক্তিতে বিলম্বকে এ অঞ্চলে অর্থনীতির মূল ঝুঁকি হিসেবে দেখা হচ্ছে। বলা হচ্ছে, ব্রেক্সিট বাণিজ্য চুক্তি না হওয়ায় যুক্তরাজ্য বড়ধরনের সমস্যায় পড়তে যাচ্ছে।

সূত্র: বিবিসিকেএএ/