রাজনীতি

‘যেই সমাজে বিচার থাকে না, সেই সমাজে অন্যায় প্রতিষ্ঠিত হয়’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশারফ হোসেন বলেছেন, বাংলাদেশে রাষ্ট্র, সমাজ, রাজিনীতি সব ক্ষেত্রেই ইসলামের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র হচ্ছে। যার কারণে অন্যায়, অত্যাচার চলছে। দেখা যাচ্ছে সত্যকে মিথ্যা দিয়ে পরাজিত করবার অপচেষ্টা চলছে। ন্যায়, অন্যায়ের কাছে পরাজিত হচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে বিকৃত করে, মিথ্যাচার করে বর্তমান প্রজন্মকে ভিন্নদিকে প্রবাহিত করার চেষ্টা চলছে।

Advertisement

তিনি বলেন, আমরা রাসুলের আদর্শ প্রতিষ্ঠা করতে পারিনি, তাই সমাজে এত অত্যাচার, অনাচার চলছে, গায়ের জোর প্রতিষ্ঠার চেষ্টা চলছে। শুধুমাত্র ন্যায়ের পক্ষে কথা বলার জন্য আজকে মানুষকে কারাবরণ করতে হয়। নির্যাতিত হতে হয়। একটি দেশে যদি একটি সরকার বারবার গায়ের জোরে ক্ষমতায় আসে, তারা স্বৈরাচার হয়ে যায়। তখন সেই সমাজে ন্যায় থাকে না। বিচার থাকে না। সেই সমাজে অন্যায় প্রতিষ্ঠিত হয়।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) দুপুরে জাতীর প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি আয়োজিত ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মোশারফ বলেন, দেশে কোরআনের অনুশাসন ও রাসুলের আদর্শ নেই বলেই এত অত্যাচার ও মানুষ গুম হচ্ছে। আজকে অনেকেই মুখে ধর্মনিরপেক্ষতার কথা বলেন। কিন্তু একজন মানুষ যদি কোনো ধর্ম মানেন, তাহলে তিনি ধর্মনিরপেক্ষ হন কীভাবে? তিনি যে ধর্মই পালন করুন, তিনি ওই ধর্মের লোক। ধর্মনিরপেক্ষ হন কীভাবে? আমরা সব কাজের আগে বিসমিল্লাহ বলি। অথচ আমাদের দেশের সংবিধানে বিসমিল্লাহ থাকবে না, এটা হতে পারে না। এটা উপলব্ধি করে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের সংবিধানে বিসমিল্লাহ সংযুক্ত করেছিলেন। আল্লাহর প্রতি বিশ্বাস, ধর্মের ওপর বিশ্বাস রেখেছিলেন।

Advertisement

তিনি আরও বলেন, আজকে যেসব পশ্চিমা দেশ নিজেদের উন্নত হিসেবে দাবি করে, তারা ইসলামের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। ইসলামী মৌলবাদ, ইসলাম জঙ্গিবাদ এসব কথা বলে ইসলামের সঙ্গে শত্রুতা করছে। অথচ মৌলবাদ হলো ইসলামের মূল ভিত্তি। মৌলবাদ কিংবা জঙ্গিবাদ এক জিনিস নয়।

কুমিল্লার ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পূজার সময় মন্দিরে কে কোরআন রেখেছে এটা আমরা জানি না। যারা এটাকে ব্যবহার করে রাজনীতি করতে চাচ্ছেন, তাদের ধিক্কার জানাই। সরকার চাইলে এটার সঠিক তদন্ত কঠিন কিছু নয়।

কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) ইব্রাহিম সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম বীরপ্রতীকের সভাপতিত্বে ও সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ ও আলেম ওলামাগণ বক্তব্য রাখেন।

এমআইএস/ইএ/জিকেএস

Advertisement