আইন-আদালত

সাংবাদিকের ওপর হামলা: এসপিএ ক্লিনিকের রিসিপশনিস্ট কারাগারে

 

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক হাসান মিসবাহ ও ক্যামেরাপারসন সাজু মিয়ার ওপর হামলার ঘটনায় করা মামলায় গ্রেফতার এসপিএ ক্লিনিকের রিসিপশনিস্ট রহমতুল্লাহকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Advertisement

শুক্রবার (১২ আগস্ট) তাকে আদালতে হাজির করা হয়। এরপর মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে কারাগারে রাখার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা কামরাঙ্গীরচর থানার পরিদর্শক (নিরস্ত্র) মোস্তফা আনোয়ার। অপরদিকে তার আইনজীবী জামিন চেয়ে আবেদন করেন। শুনানি শেষে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শহিদুল ইসলাম তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়ে জামিন শুনানির জন্য ১৪ আগস্ট দিন ধার্য করেন।আরও পড়ুন>> সাংবাদিকের ওপর হামলা: দুই চিকিৎসকসহ চারজন রিমান্ডে

এর আগে বুধবার (১০ আগস্ট) আসামি ডা. এইচএম উসমানী, মো. আবুল হাসনাত সুমন, মো. রাসেল হাওলাদার ও ডা. ডি এম এ আবু জাহিদকে আদালতে হাজির করা হয়। এরপর মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে তাদের পাঁচদিন করে রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মোস্তফা আনোয়ার। অন্যদিকে আসামিপক্ষ রিমান্ড বাতিল ও জামিন চেয়ে আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ফারাহ দিবা ছন্দা তাদের জামিন নামঞ্জুর করে প্রত্যেকের তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মঙ্গলবার (৯ আগস্ট) চিকিৎসা ব্যবস্থায় অব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক হাসান মিসবাহ ও ক্যামেরা পারসন সাজু মিয়ার ওপর এ হামলা হয়।আরও পড়ুন>> দুই সাংবাদিকের ওপর হামলা: জড়িতদের গ্রেফতারসহ দ্রুত বিচারের দাবি

Advertisement

‘কামরাঙ্গীরচরে এসপিএ ক্লিনিকে একজন ভুয়া চিকিৎসক বসেন’— এমন তথ্যের ভিত্তিতে তারা সেখানে যান এবং ক্লিনিকটির মালিক উসমানীর সাক্ষাৎকার নিতে শুরু করেন। এর একপর্যায়ে ১৫ থেকে ২০ জন লোক ডেকে এনে তাদের ওপর হামলা করা হয়। এ ঘটনায় কামরাঙ্গীরচর থানায় ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক হাসান মিসবাহ একটি মামলা করেন।

জেএ/এমএএইচ/