দেশজুড়ে

গভীর রাতে ডাকাত আতঙ্কে মসজিদে মাইকিং

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার কেরোয়া ও চরপাতা ইউনিয়নের অধিকাংশ মসজিদে গভীর রাতে মাইকিং করা হয়েছে। এলাকায় ডাকাত ঢুকেছে জানিয়েছে শুক্রবার (১৯ আগস্ট) দিবাগত রাতে এ মাইকিং করা হয়। এতে এসব এলাকার লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে দলবদ্ধভাবে রাস্তায় বেরিয়ে পাহারা দিতে থাকেন। এনিয়ে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

Advertisement

এদিকে স্থানীয় লোকজন রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিপন বড়ুয়া ও জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এ কল করে এলাকায় ডাকাত ঢোকার অভিযোগ করেন। খবর পেয়ে থানা পুলিশের একাধিক দল টহল জোরদার করে।

চরপাতা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সুলতান মামুন রশিদ ডাকাতের বিষয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে জনগনকে সজাগ থাকার আহ্বান জানান।

রাতে ওই ইউপি চেয়ারম্যান জানান, ইউনিয়নে ডাকাত আতঙ্কের কারণে মসজিদে মসজিদে মাইকিং চলছে। সন্দেহজনক স্থানগুলোতে থানা পুলিশ ও গ্রাম পুলিশদের টহল চলছে। থানার ওসি সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন।

Advertisement

কেরোয়া ও চরপাতা ইউনিয়নের ৫ জন বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, প্রথমে রাত ১২ টার দিকে কেরোয়ার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের একটি সুপারি বাগানে ডাকাত দলের অবস্থান করার ঘটনা কয়েক ব্যক্তি দেখতে পান। পরে তারা ফোনে জানিয়ে আশপাশের লোকজনকে জড়ো করেন। এরপর মসজিদের মাইকে ঘোষণা দেওয়া হয় এলাকায় ডাকাত ঢুকেছে, সবাই সতর্ক থাকুন। ডাকাত পাহারায় রাস্তায় নামুন। এরপর পাশের চরপাতা ইউনিয়নে ডাকাত ঢোকার কথা মসজিদে ঘোষণা হয়। লোকজন লাঠিসোটা, টর্চলাইচ নিয়ে ডাকাত পাহারায় রাস্তায় নামেন।

রায়পুর থানা পুলিশ জানিয়েছে, কেরোয়া ও চরপাতা সীমান্তবর্তী এলাকা। এ দুই ইউনিয়নসহ উপজেলাব্যাপী ডাকাতিরোধে পুলিশের টহল জোরদার রয়েছে। অনেকে গুজব ছড়াচ্ছে। জনগণ যেন বিভ্রান্ত না হন সেজন্য সতর্ক হতে হবে।

কাজল কায়েস/এফএ/এএসএম

Advertisement