EN
  1. Home/
  2. দেশজুড়ে

মির্জাপুরে দানবীর রণদা প্রসাদের জন্মবার্ষিকী পালিত

উপজেলা প্রতিনিধি | মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) | প্রকাশিত: ১১:৩৮ পিএম, ১৫ নভেম্বর ২০২০

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে কুমুদিনী হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা দানবীর রণদা প্রসাদ সাহার ১২৪তম জন্মদিন পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে রোববার মির্জাপুরে কুমুদিনী কল্যাণ সংস্থা, কুমুদিনী হাসপাতাল, নার্সিং স্কুল অ্যান্ড কলেজ, কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজ ও ভারতেশ্বরী হোমস দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির আয়োজন করে।

কুমুদিনী হাসপাতালে রণদার প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য দিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। কর্মসূচির মধ্যে ছিল প্রার্থনা ও আলোচনা সভা, কুমুদিনী হাসপাতালে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন এবং ভারতেশ্বরী হোমসের ছাত্রীদের রক্তদান কর্মসূচি।

এছাড়া কুমুদিনী হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ড নানা রঙে সাজিয়ে রাত আটটায় ভারতেশ্বরী হোমস মাঠে মোমবাতি প্রজ্বলন করা হয়। এতে হোমসের ছাত্রী, নার্স, শিক্ষক ও অতিথিবৃন্দ প্রায় পাঁচ শতাধিক মোমবাতি প্রজ্বলন করে।

jagonews24

এর আগে সেখানে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। কুমুদিনী কল্যাণ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাজিব প্রসাদ সাহার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ভাষাসৈনিক প্রতিভা মুৎসুদ্দি, টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. আতাউল গনি, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় প্রমুখ।

এ সময় মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল মালেক, সহকারী কমিশনার (ভুমি) জুবায়ের হোসেন, টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শফিকুল ইসলাম, সহকারী পুলিশ সুপার মির্জাপুর সার্কেল দীপঙ্কর ঘোষ, মির্জাপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র মুক্তিযোদ্ধা শহীদুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। পরে ভারতেশ্বরী হোমসে কেক কাটা হয়।

উল্লেখ্য, ১৮৯৬ সালের ১৫ নভেম্বর উথ্যান একাদশীতে অতি দরিদ্র পরিবারে রণদা প্রসাদ সাহার জন্ম। তার মায়ের নাম কুমুদিনী এবং বার নাম দেবেন্দ্র নাথ সাহা। শিশুকালেই পিতা-মাতাকে হারিয়ে বড় হতে থাকেন তিনি। কঠিন অধ্যাবসায় আর অদম্য সাহসিকতা নিয়ে এগিয়ে যান তিনি।

জীবন সংগ্রামে জয়ী এই রণদা প্রসাদ সাহা জীবনের সমস্ত উপার্জিত অর্থ মানবতার কল্যাণে দান করে কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযদ্ধের সময় পাক হানাদার বাহিনীর এ দেশীয় দোসরদের সহায়তায় রণদা প্রসাদ সাহা ও ছেলে ভবানী প্রসাদ সাহাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। তার পর থেকে তাদের আর কোনো সন্ধান মেলেনি।

এরশাদ/এমএসএইচ