EN
  1. Home/
  2. আন্তর্জাতিক

প্রত্যাশিত সময়ের আগেই মিলতে পারে করোনা টিকা : ফাউসি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | প্রকাশিত: ০৭:২৯ পিএম, ০২ সেপ্টেম্বর ২০২০

চলমান ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালগুলো যদি অতিমাত্রায় ইতিবাচক ফল দেয় তাহলে প্রত্যাশিত সময়ের আগে কোভিড-১৯ এর একটি ভ্যাকসিন পাওয়া যেতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক ব্যাধি বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসি। মঙ্গলবার কেইজার হেলথ নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ফাউসি এমন প্রত্যাশার কথা জানিয়েছেন বলে খবর দিয়েছে সিএনএন।

৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবী করোনাভাইরাসের দুটি ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে অংশ নিয়েছেন; চলমান এ পরীক্ষার ফল চলতি বছরের শেষ দিকে আসতে পারে বলে প্রত্যাশা করেছেন তিনি।

ফাউসি বলেছেন, অন্তর্বর্তী ফলাফল যদি অতিমাত্রায় ইতিবাচক বা নেতিবাচক হয়, তাহলে কয়েক সপ্তাহ আগেই স্বতন্ত্র বোর্ড পরীক্ষা প্রক্রিয়া শেষ করতে পারে।

তিনি বলেন, যদি ডেটা ও সেফটি মনিটরিং বোর্ড বলে, ভ্যাকসিন পরীক্ষার ফল ভালো; তাহলে এটাকে নিরাপদ এবং কার্যকর বলা যেতে পারে। তাহলে সেক্ষেত্রে নির্ধারিত সময়ের আগেই পরীক্ষা শেষ করার ‘নৈতিক বাধ্যবাধকতা’ রয়েছে গবেষকদের।

‘পরে গবেষণায় অংশ নেয়া প্রত্যেকের; যাদের প্ল্যাসেবো দেয়া হয়েছিল, তাদের সবার জন্য ভ্যাকসিন সহজলভ্য করতে হবে। এরপরই কেবল লাখ লাখ মানুষের কাছে ভ্যাকসিন পৌঁছানোর প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করতে হবে।’

মার্কিন শীর্ষ এই বিশেষজ্ঞ এমন এক সময় এই ভ্যাকসিন প্রত্যাশিত সময়ের আগে পাওয়ার ব্যাপারে মন্তব্য করলেন, যখন করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় মার্কিন প্রশাসনের সমালোচনা রয়েছে। এমনকি আগামী নভেম্বরের নির্বাচনে ভোটারদের মন জয় করার জন্য ট্রাম্প প্রশাসন ভ্যাকসিন দ্রুত আনতে নিয়ন্ত্রক এবং বিজ্ঞানীদের ওপর চাপ প্রয়োগ করতে পারেন বলেও গুঞ্জন রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রখ্যাত ভ্যাকসিন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তারা আশঙ্কা করছেন— নির্বাচনে জয়ের জন্য ভ্যাকসিন অনুমোদনের ক্ষেত্রে চাপ তৈরি করতে পারেন ট্রাম্প।

যুক্তরাষ্ট্রে শেষ ধাপের পরীক্ষায় রয়েছে অন্তত তিনটি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন। এর মধ্যে প্রথম দুটি ভ্যাকসিনের পরীক্ষা শুরু হয়েছে জুলাইয়ের শেষ দিকে। এই দুই ভ্যাকসিন হলো মডার্না ও ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথের একটি এবং ফাইজার ও বায়োএনটেকের একটি। প্রত্যেকটি ভ্যাকসিনের পরীক্ষায় ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

এছাড়া অ্যাস্ট্রাজেনেকা এবং অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীদের তৈরি করোনা ভ্যাকসিনের শেষ ধাপের পরীক্ষাও যুক্তরাষ্ট্রে ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবীর দেহে প্রয়োগ শুরু হয়েছে। অক্সফোর্ডের এই ভ্যাকসিনের পরীক্ষা যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া ব্রিটেন, ব্রাজিল এবং দক্ষিণ আফ্রিকায়ও চলমান। চলতি মাসে অন্যান্য কিছু ভ্যাকসিনের পরীক্ষা যুক্তরাষ্ট্রে শুরু হতে পারে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

সূত্র : সিএনএন।

এসআইএস/এমএস