ভিডিও EN
  1. Home/
  2. লাইফস্টাইল

ত্বকের যত্নে ভিটামিন সি’যুক্ত ফেসওয়াশ কেন উপকারী?

লাইফস্টাইল ডেস্ক | প্রকাশিত: ০৪:০৪ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০২২

ফেসওয়াশ ত্বককে গভীরভাবে পরিষ্কার করতে সাহায্য করে। পরিবেশ দূষণের কারণে প্রতিদিন অনেক দূষিত পদার্থ ত্বকে জমা হয়।

ত্বকের গভীর থেকে পরিষ্কার না করলে ত্বকের উজ্জ্বলতা হারিয়ে যায় ও অ্যাকনে প্রবলেম দেখা দেয়। এজন্য ত্বকের যত্নে ভালো উপকারী হতে পারে ভিটামিন সি।

ত্বকের যত্নে ভিটামিন সি’র উপকারিতা

ভিটামিন সি এমন একটি উপাদান যা ত্বকের গভীরে প্রবেশ করতে পারে। তাই ভিটামিন সি’যুক্ত ফেসওয়াশ ত্বককে গভীর থেকে পরিষ্কার করে।

ভিটামিন সি ত্বককে ইউভি প্রোটেকশন দেয়, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট হওয়ায় ত্বককে ফ্রি রেডিক্যাল ও অক্সিডেটিভ ড্যামেজ থেকে মুক্ত রাখে।

আর কোলাজেন সিন্থেসিসের মাধ্যমে ত্বকের কোলাজেন প্রোডাকশন বৃদ্ধি করে। তাতে বলিরেখা দূর হয়। পাশাপাশি অতিরিক্ত মেলানিন উৎপাদন নিয়ন্ত্রণ করে। ফলে হাইপার পিগমেন্টেশন ও ডার্ক স্পট দূর করতেও কার্যকরী ভূমিকা রাখে ভিটামিন সি।

ত্বকের যত্নে যারা ভিটামিন সি’যুক্ত ফেসওয়াশ ব্যবহার করতে চান, তারা যায়ান অ্যান্ড মাইজা ভিটামিন সি ফেসওয়াশ বেছে নিতে পারেন। এটি ইথাইল অ্যাসকরবিক অ্যাসিড’যুক্ত ফেসওয়াশ।

কেন যায়ান অ্যান্ড মাইজা ভিটামিন সি ফেসওয়াশ ব্যবহার করবেন?

১০০ শতাংশ ভেষজ উপাদানে তৈরি সম্পূর্ণ কেমিক্যালমুক্ত ফেসওয়াশ এটি। ত্বকে নিয়মিত ব্যবহারের জন্য উপকারী। এই ফেসওয়াশ ত্বকের পিএইচ লেভেল ব্যালেন্স করতে পারে।

এই ফেসওয়াশ স্মল মলিকিউলের তৈরি। খুব ছোট মলিকিউলার গঠন ও ইথাইল অ্যাসকরবিক অ্যাসিড’যুক্ত হওয়ায় ত্বককে গভীর থেকে পরিষ্কার করে।

এতে আছে অ্যালোভেরা ও হোলি বেসিল। যা স্কিনের আর্দ্রতা ফিরিয়ে আনে। ইন-বিল্ট এপ্লিকেটর সমৃদ্ধ ফেসওয়াশটি এপ্লিকেটরের সাহায্যে দিনে দু’বার ত্বকে ব্যাবহার করলে ব্রণের দাগ ও হাইপার পিগমেন্টেশন দূর হবে।

ফলে ত্বক আরও উজ্জ্বল ও কোমল হয়ে উঠবে। স্কিনকে ড্যামেজ ফ্রি রাখে এই ফেসওয়াশ। পাশাপাশি স্কিনের ওপেন পোরস মিনিমাইজ করবে।

জেএমএস/এমএস

আরও পড়ুন