পর্যাপ্ত ঘুম না হলে জেনে নিন কখন বালিশ বদলানো জরুরি

প্রকাশিত: ০৬:৫২ পিএম, ১৫ মার্চ ২০১৯, আপডেট: ০৬:৫২ পিএম, ১৫ মার্চ ২০১৯

প্রত্যেকটি মানুষকে সুস্থ থাকার জন্য প্রয়োজন পর্যাপ্ত ঘুম। আর বালিশ ঠিকঠাক না হলে অনেকেই ঠিক মতো ঘুমোতে পারেন না। তখন সারা রাত এপাশ-ওপাশ করেই কাটিয়ে দিতে হয়! তাই বালিশটা একদম ‘পারফেক্ট’ হওয়া চাই! কিন্তু কী করে বুঝবেন, কখন আপনার বালিশ বদলে ফেলা উচিৎ? আসুন জেনে নেওয়া যাক এ সম্পর্কে।

আপনার বালিশটি যদি ‘পারফেক্ট’ না হয়, সে ক্ষেত্রে আপনার শরীরের উপরের অংশে নানা সমস্যা তৈরি হতে পারে। বালিশ ঠিকঠাক না হলে মাথা ব্যথা, ঘাড়ে ব্যথা, পিঠে ব্যথা ক্রমশ বাড়তেই থাকে। তাই নিয়মিত এমন হতে থাকলে বুঝতে হবে, বালিশ বদলে ফেলার সময় হয়েছে।

আপনার বালিশটি যদি ‘পারফেক্ট’ না হয়, সে ক্ষেত্রে আপনার শরীরের উপরের অংশে নানা সমস্যা তৈরি হতে পারে। বালিশ ঠিকঠাক না হলে মাথা ব্যথা, ঘাড়ে ব্যথা, পিঠে ব্যথা ক্রমশ বাড়তেই থাকে। তাই নিয়মিত এমন হতে থাকলে বুঝতে হবে, বালিশ বদলে ফেলার সময় হয়েছে।

ঘুমের সময় শোবার ভঙ্গিই বলে দেবে যে, আপনার বালিশটি আরামদায়ক কিনা! ঘুমের সময় আপনার শোবার ভঙ্গি যদি ঠিকঠাক না থাকে বা ঘুমের সময় যদি আপনার কাঁধের আশেপাশের অংশ যদি ঝুলে থাকে তাহলে বুঝতে হবে, বালিশ বদলে ফেলার সময় হয়েছে।

ঘুমের সময় শোবার ভঙ্গিই বলে দেবে যে, আপনার বালিশটি আরামদায়ক কিনা! ঘুমের সময় আপনার শোবার ভঙ্গি যদি ঠিকঠাক না থাকে বা ঘুমের সময় যদি আপনার কাঁধের আশেপাশের অংশ যদি ঝুলে থাকে তাহলে বুঝতে হবে, বালিশ বদলে ফেলার সময় হয়েছে।

কোনো বালিশ দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহারের ফলে সেটি শক্ত হয়ে যায় বা সেটির আকার পরিবর্তিত হয়ে যায়। বালিশের উচ্চতা এমন হওয়া উচিৎ, যাতে কাঁধ বা ঘাড় না বাঁকিয়ে মোটামুটি সোজা বা সমান্তরাল রেখে শোওয়া যায়। বালিশ অতিরিক্ত শক্ত হলে বা সেটির উচ্চতা সঠিক না হলে নানা সমস্যা হতে পারে। তাই এ ক্ষেত্রে বালিশ বদলে ফেলাই ভালো।

কোনো বালিশ দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহারের ফলে সেটি শক্ত হয়ে যায় বা সেটির আকার পরিবর্তিত হয়ে যায়। বালিশের উচ্চতা এমন হওয়া উচিৎ, যাতে কাঁধ বা ঘাড় না বাঁকিয়ে মোটামুটি সোজা বা সমান্তরাল রেখে শোওয়া যায়। বালিশ অতিরিক্ত শক্ত হলে বা সেটির উচ্চতা সঠিক না হলে নানা সমস্যা হতে পারে। তাই এ ক্ষেত্রে বালিশ বদলে ফেলাই ভালো।

আপনি কি সব সময় ঘুম থেকে উঠেই হাঁচি দেন? তাহলে বুঝতে হবে আপনার পুরনো বালিশটিতে ধুলো বা অ্যালার্জি সৃষ্টিকারী জীবাণু বাসা বেঁধেছে। এর ফলেই অ্যালার্জি বা অনর্গল হাঁচি ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। তাই দেরি না করে বালিশটি দ্রুত বদলে ফেলাই ভালো।

আপনি কি সব সময় ঘুম থেকে উঠেই হাঁচি দেন? তাহলে বুঝতে হবে আপনার পুরনো বালিশটিতে ধুলো বা অ্যালার্জি সৃষ্টিকারী জীবাণু বাসা বেঁধেছে। এর ফলেই অ্যালার্জি বা অনর্গল হাঁচি ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। তাই দেরি না করে বালিশটি দ্রুত বদলে ফেলাই ভালো।

আরও