দেশজুড়ে

ঝড়ের কবলে পড়ে মিয়ানমারের জলসীমানায় ২২ বাংলাদেশি

টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন যাওয়ার পথে ঝড়ের কবলে পড়ে মিয়ানমার জলসীমানায় ঢুকে পড়ে বাংলাদেশিদের বহনকারী একটি ট্রলার। পরে ট্রলারসহ সেন্টমার্টিন দ্বীপের ২২ বাসিন্দাকে উদ্ধার করেন কোস্টগার্ডের সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন যাওয়ার পথে মিয়ানমারের জলসীমানায় ঢুকে পড়ে ট্রলারটি। কোস্টগার্ড সেন্টমার্টিন স্টেশনের কমান্ডার লে. জোছেল রানা এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

লে. জোছেল রানা বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন যাওয়ার পথে যাত্রীবাহী একটি ট্রলার নাফ নদী পার হয়ে বঙ্গোপসাগরের মিয়ানমার সীমান্তঘেঁষা নাইক্ষ্যং দ্বীপ এলাকায় পৌঁছলে ট্রলারটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়। খবর পেয়ে কোস্টগার্ডের একটি দল দুপুরে ঘটনাস্থলে পৌঁছে ট্রলারটি উদ্ধার করে। ট্রলারে দুই নারীসহ ২২ জন যাত্রী ছিলেন। বিকেলে তাদের দ্বীপে নিয়ে আসা হয়। তারা সবাই সুস্থ আছেন।

উদ্ধার ট্রলারের যাত্রী আবদুর রহিম বলেন, ট্রলারটি ভেসে মিয়ানমারের জলসীমানায় চলে যায়। এ সময় দমকা হাওয়ার সঙ্গে ভারী বৃষ্টি শুরু হলে যাত্রীরা কান্নাকাটি শুরু করেন। মনে হচ্ছিল, জীবন বোধহয় এখানেই শেষ।

সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর আহমদ বলেন, সাগরের মাঝপথে বিকল হওয়া যাত্রীবাহী ট্রলারটি উদ্ধার করে কোস্টগার্ড সদস্যরা দ্বীপের ২২ বাসিন্দার প্রাণ রক্ষা করেছেন। কোস্টগার্ড উদ্ধার করতে না পারলে হয়তো এসব লোকজন মিয়ানমার সীমান্ত বাহিনীর হাতে আটক হতেন।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. রবিউল হাসান বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগে পড়ে সাগরে বিকল ট্রলারটি যাত্রীসহ উদ্ধার করে দ্বীপে আনা হয়েছে। তাদের সময়মতো উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

সায়ীদ আলমগীর/এএম/পিআর