আন্তর্জাতিক

করোনাভাইরাস : ইরান থেকে ৭শ নাগরিককে ফিরিয়ে নিচ্ছে কুয়েত

চীনে থেকে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে ইরানে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। এতে আক্রান্ত হয়েছে আরও ২৮ জন। এ পরিস্থিতিতে দেশটিতে থাকা ৭শর বেশি নাগরিককে ফিরিয়ে নিতে চার্টার ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করেছে কুয়েত।

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) কুয়েত এয়ারওয়েজ ও কুয়েত বার্তা সংস্থা (কুনা) এ তথ্য জানিয়েছে। দেশটির বার্তা সংস্থা জানিয়েছে, শনিবার প্রথম পাঁচটি ফ্লাইটে ১৩০ জন যাত্রী কুয়েত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছেছে।

ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, দেশটিতে এ পর্যন্ত মোট ২৮ জন করোনাভাইরাসের আক্রান্তের খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে শনিবার নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ১০ জন।

এর আগে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে গত বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) মধ্যপ্রাচ্যের প্রথম দেশ হিসেবে ইরানে দুজনের মৃত্যু হয়। শুক্রবার (২২ ফেব্রুয়ারি) মৃত্যু হয় আরও দুজনের। পরে ইরানের মারকাজী প্রদেশের কেন্দ্রীয় শহর আরাকে শনিবার আরও এক করোনাভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি মারা গেছেন। এ পর্যন্ত ইরানের রাজধানী তেহরান এবং কোম ও গিলান প্রদেশে প্রাণঘাতী এই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপদেষ্টা কিয়ানুশ জাহানপুর বলেন, নতুন করে শনাক্ত ঘটনাগুলোর সঙ্গে কোম শহরের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে। নতুন যে ঘটনাগুলো ঘটেছে সেগুলো হয় কোমে ঘটেছে, নয়তো সম্প্রতি শহরটি থেকে ঘুরে এসেছেন এমন ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে।

এর আগে গত বুধবার দুজনের মৃত্যুর খবর জানায় ইরানি স্বাস্থ্যমন্ত্রীর উপদেষ্টা আলিরেজা ভাহাবজাদে বলেন, তেহরানের দক্ষিণাঞ্চলীয় কোম শহরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দুই বৃদ্ধ মারা গেছেন। ভাইরাসের কারণে তারা ফুসফুসের জটিল সংক্রমণে ভুগছিলেন। তবে মৃতদের নাম-পরিচয় জানানি তিনি।

গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী শহর উহান থেকে প্রথমবারের মতো ধরা পড়ে নভেল করোনাভাইরাস। এখন পর্যন্ত বিশ্বের অন্তত ২৯টি দেশে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়েছে। উহানের একটি সামুদ্রিক খাবারের বাজার থেকে এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বলে ধারণা করা হচ্ছে।

চীনে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস থেকে সৃষ্ট কোভিড-১৯ নামক রোগে এখন পর্যন্ত আক্রান্তেন সংখ্যা এখন ৭৬ হাজার ২৮৮ জন। এছাড়া এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ২ হাজার ৩৪৫। বিশ্বের ২৯টি দেশে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস ছড়িয়েছে। এসব দেশে ১৭ জনের মৃত্যু ছাড়াও আক্রান্ত হয়েছেন আরও প্রায় ১ হাজার ৬৪০ জন।

এমএসএইচ