দেশজুড়ে

কলেজছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করায় যুবককে গণধোলাই

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় এক কলেজছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করায় মো. হাসান (৩০) নামের এক যুবককে এলাকাবাসী আটক করে গণধোলাই দিয়েছে। পরে স্থানীয় জনতা ভ্রাম্যমাণ আদালতকে খবর দিলে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ঘটনাস্থলে গিয়ে বখাটে যুবকের কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দিয়েছেন।

Advertisement

বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টার দিকে ফতুল্লা সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আজিজুল ইসলাম ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে ওই বখাটে যুবকের কাছ থেকে মুচলেকা নেন। হাসান ফতুল্লার মুসলিমনগর এতিমখানার পশ্চিমপাড়া এলাকার মৃত ফটিকচাঁনের ছেলে।

এলাকাবাসী জানায়, ফতুল্লার মুসলিমনগর দক্ষিণপাড়ার মাস্টারবাড়ি এলাকার কলেজ শিক্ষার্থীকে দীর্ঘদিন ধরে উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন বখাটে হাসান। এলাকাবাসী একাধিকবার নিষেধ করার পরও শিক্ষার্থীকে উত্ত্যক্ত করছিলেন হাসান।

বৃহস্পতিবার বিকেলে কলেজছাত্রী কোচিং করতে চাষাঢ়া যাওয়ার পথে উত্ত্যক্ত করেন হাসান। একপর্যায়ে কলেজছাত্রীকে কুপ্রস্তাব দেন তিনি। কলেজছাত্রী হাসানের কথা না শোনায় হয়রানি করেন।

Advertisement

এ সময় স্থানীয়রা হাসানকে আটক করে গণধোলাই দেন। এরপর স্থানীয়রা জেলা প্রশাসনকে খবর দেয়। খবর পেয়ে ফতুল্লা সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আজিজুল ইসলাম ঘটনাস্থলে যান। ঘটনা তদন্ত করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে বখাটে যুবকের কাছ থেকে মুচলেকা নেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আজিজুল ইসলাম বলেন, কলেজছাত্রীকে উত্ত্যক্তের কারণে স্থানীয় লোকজন হাসানকে আটক করে আমাদের খবর দেয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে ভবিষ্যতে কলেজছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করবে না মর্মে মুচলেকা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।

শাহাদাত হোসেন/এএম/জেআইএম

Advertisement