EN
  1. Home/
  2. বিনোদন

শুরুতেই চমক, প্রশংসায় ভাসছে ‘কাঠবিড়ালী’

বিনোদন প্রতিবেদক | প্রকাশিত: ০৯:৩৭ পিএম, ১৭ জানুয়ারি ২০২০

প্রত্যাশার সঙ্গে প্রাপ্তির গড়মিল হলে গোলমাল লেগে যায়। আর এই হিসেবেই এগিয়ে রইল নিয়ামুল মুক্তা পরিচালিত প্রথম সিনেমা ‘কাঠবিড়ালী’। আজ শুক্রবার সারাদেশে মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি। কাঠবিড়ালী’তে প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করেছেন অভিনেত্রী অর্চিতা স্পর্শিয়া ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষার্থী আসাদুজ্জামান আবীর।

শুক্রবার রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্সের বিকেলের শো তে দেখা গেল দর্শকের বেশ ভিড়। পরিচালক, অভিনেতা, অভিনেত্রীদের শুভাকাঙ্ক্ষীর পাশাপাশি হল ভরা ছিল সাধারণ দর্শক। কাঠবিড়ালীর প্রদর্শনী শেষে বেশ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করতে দেখা গেছে দর্শকদের।

কেউ কেউ বলছিলেন, নিয়ামুল মুক্তা প্রথম ছবিতেই এমন দক্ষতার ছাপ রাখতে পারবেন এতটা প্রত্যাশা করিনি। কিন্তু খুব দক্ষভাবেই গল্প বলতে পেরেছেন নিয়ামুল। প্রথমেই একটি খুনের দৃশ্য দিয়ে দর্শকদের গল্পে বন্দি করেছেন তিনি। এরপর পুরো গল্প বলে গেছেন আপন ঢংয়ে। সিনামার শেষ দৃশ্য না দেখে বলার উপায় নেই, আসল রহস্য কী!

ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করা স্পর্শিয়া, আবির ও শাওনের অভিনয়ে মুগ্ধতার কথাও প্রকাশ করেছেন অনেকেই। গ্রামীণ পটভূমির পুরো গল্পেই ছিল অনেকগুলো বাঁক, দারুণ দৃশ্যায়ন আর ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিকে ছিল নান্দনিকতার ছোঁয়া।

রাজধানীর ঢাকা কলেজের ছাত্র আনিসুজ্জামান বলেন, ‘অনেক দিন পর নিজের দেশের একটা ভালো সিনেমা দেখলাম। সিনেমাটি দেখে মনে হয়েছে আমাদের দেশের তরুণ নির্মাতারাও অনেক ভালো ছবি বানাতে পারেন। একবারও মনে হয়নি এটা কোনো নির্মাতার প্রথম সিনেমা।’

cat

ছবিটি নিয়ে পরিচালক নিয়ামুল মুক্তা বলেন, ‘প্রথম দিনে দর্শকের যে সাড়া পাচ্ছি তাতে আমি মুগ্ধ। আমরা সবাই মিলে একটি সিনেমা বানিয়েছি। এই সিনেমার সঙ্গে সম্পৃক্ত সবার ত্যাগের ফসল এটি। দর্শকদের ভালো লাগলেই আমাদের পরিশ্রম সার্থক। এখনও যারা ছবিটি দেখেননি তাদের দেখার আমন্ত্রণ রইল।’

নায়িকা স্পর্শিয়া বললেন, ‘আজ দর্শক সারিতে সিনেমাটি আমিও দেখলাম। যা দেখলাম তাতে মনে হয়েছে কাঠবিড়ালীতে অভিনয় আমার অন্য রকম প্রাপ্তি। নতুন ছবির সঙ্গে বছরটা বেশ ভালোভাবেই শুরু হলো।’

সিনেমাটির নায়ক আবীর বলেন, ‘দারুণ একটি গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে আমাদের কাঠবিড়ালী সিনেমাটি। আমার বিশ্বাস দর্শক ছবিটি দেখলে তাদের সময় নষ্ট হবে না। ছবিটি দেখে দারুণ এক অনুভূতি নিয়ে ঘরে ফিরতে পারবেন সবাই।’

চিলেকোঠা ফিল্মস’র ব্যানারে নির্মিত এই সিনেমাটিতে অর্চিতা স্পর্শিয়া ও আসাদুজ্জামান আবীর ছাড়াও আরও অভিনয় করেছেন সাঈদ জামান, শাহরিয়ার ফেরদৌস, শিল্পী সরকার, হিন্দোল রায়, এ কে আজাদ, তানজিনা রহমান। সিনেমাটির কাহিনি লিখেছেন পরিচালক নিজেই। চিত্রনাট্য করেছেন তাসনিমুল তাজ।

সিনেমাটি চলছে স্টার সিনেপ্লেক্স (ঢাকা), ব্লকবাস্টার সিনেমাস্ (ঢাকা), বলাকা সিনেওয়ার্ল্ড (ঢাকা), মধুমিতা (ঢাকা), শ্যামলী সিনেমা (ঢাকা), আনন্দ ( ঢাকা), চিত্রামহল (ঢাকা), সিনেস্কোপ (নারায়ণগঞ্জ), মম ইন (বগুড়া), সিলভার স্ক্রিন (চট্টগ্রাম), ছায়াবাণী (ময়মনসিংহ), বর্ষা (জয়দেবপুর), চন্দ্রিমা (শ্রীপুর), শঙ্খ (খুলনা), লিবার্টি সিনেপ্লেক্স (খুলনা), রুপকথা (পাবনা), শাপলা (রংপুর), অভিরুচি (বরিশাল) হলে।

এমএবি/পিআর