আন্তর্জাতিক

মৃত সিংহের পাশে বসে দম্পতির চুম্বন

শিকারের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়েছিলেন এক কানাডিয়ান দম্পতি। সেখানে গিয়ে তারা একটি সিংহ শিকার করেন। এরপর সেই সিংহের পাশে বসে একে অপরকে চুম্বন করেন তারা। সম্প্রতি তাদের এই ছবি ইন্টারনেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কানাডার ওই দম্পতির নাম ড্যারেন ও ক্যারলিন কার্টার। তারা দক্ষিণ আফ্রিকার লেগেলেলা সাফারিতে ট্রফি হান্টিংয়ে অংশ নেন। সেখানে শিকার করার পাশাপাশি ছবি তোলার আয়োজন করা হয়।

খেলার ছলে বন্য পশু শিকার করাকে ট্রফি হান্টিং বলে। পরে নিজেদের শিকারের সাফল্য তুলে ধরতে সেই পশুর চামড়া, শিং ইত্যাদি স্মারক রূপে রাখা হয়।

ট্রফি হান্টিংয়ে ওই কানাডিয়ান দম্পতি একটি সিংহ মারেন। এরপর সেই সিংহের পাশে বসে ছবি তোলেন। লেগেলেলা সাফারির ফেসবুক পেজে ছবিটির সঙ্গে লেখা হয়, ‘কালাহারির প্রখর রৌদ্রে কঠিন এই কাজ করেছেন...সাবাশ! দৈত্যাকার সিংহ।’

আরও পড়ুন > প্রকাশ্যে চুমু দেয়া দুতার্তে আনলেন নতুন আইন, শিস দিলেই কারাদণ্ড

এই ছবি ছড়িয়ে পড়তেই ট্রফি হান্টিং নিষিদ্ধে জোরালো দাবি উঠতে শুরু করেছে। সেই সঙ্গে ওই দম্পতিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘নীচ’, ‘ন্যক্কারজনক’ বলে ক্ষোভ ঝাড়ছেন নেটিজেনরা। পরে যখন ড্যারেন কার্টারকে বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন করা হয় তিনি বলেন, ‘আমরা বিষয়টি নিয়ে মন্তব্য করতে আগ্রহী নই। এটি অতিমাত্রায় রাজনৈতিক।’

ট্রফি হান্টিং নিষিদ্ধ ঘোষণার পক্ষে অ্যাডুয়ার্ডো গনক্যালভেস নামে একজন টুইট করেছেন। তিনি বলেন, ‘ট্রফি হান্টিং একটি খারাপ বিষয়। প্রতি বছর ব্রিটেনে যে পরিমাণ হান্টিং ট্রফি ঢোকে তা জাতীয় ভাবমূর্তির ক্ষেত্রে কলঙ্কের।’

লেগেলেলা সাফারির ফেসবুক পেজে ছবিটি শেয়ার হওয়ার পর খুব দ্রুত ভাইরাল হয়। কিন্তু বিশ্বজুড়ে এতো পশুপ্রেমী ও সাধারণ মানুষ এই ছবিটির বিরুদ্ধে রিপোর্ট করেন যে, লেগেলেলার ফেসবুকে পেজটিই ব্লক হয়ে গেছে!

Darren and Carolyn Carter, from Edmonton in Alberta, Canada. As long as I live, I will never undestand what pleasure people can get out of doing this. #AnimalRights #animalrescue pic.twitter.com/2KrOafs6kR

— Ibrahim (@sayfudiin) July 15, 2019

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

এমএসএইচ/জেআইএম