জাতীয়

ঘূর্ণিঝড়ে স্বাস্থ্যঝুঁকি মোকাবিলায় প্রস্তুত স্বাস্থ্য বিভাগ

বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে আসা শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’-এর প্রভাবে স্বাস্থ্যঝুঁকি মোকাবিলা ও চিকিৎসাসেবা প্রদানে স্বাস্থ্য বিভাগের সার্বিক প্রস্তুতি রয়েছে। ইতোমধ্যেই ঝুঁকিপূর্ণ ৭ জেলা- খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, বরগুনা, পটুয়াখালী, পিরোজপুর ও ভোলা জেলায় কর্মরত স্বাস্থ্য বিভাগের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। পুনরায় আদেশ না দেয়া পর্যন্ত এ নির্দেশনা বহাল থাকবে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ শুক্রবার রাত ১০টায় জাগো নিউজের সঙ্গে আলাপকালে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, ঝুঁকিপূর্ণ জেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত সিভিল সার্জনসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণের নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট জেলাগুলোতে ওষুধপত্র মজুদ রয়েছে। জরুরি চিকিৎসাসেবা প্রদানের লক্ষ্যে গঠিত মেডিকেল টিমকে স্ট্যান্ডবাই রাখা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, যেকোনো জেলায় ঘূর্ণিঝড় বুলবুল আঘাত আনলে সংশ্লিষ্ট জেলার স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের মাধ্যমে যত দ্রুত সম্ভব ক্ষয়ক্ষতি নির্ধারণ, আঘাতপ্রাপ্তদের তালিকা তৈরি ও জরুরি চিকিৎসাসেবা প্রদানের জন্য ঢাকা থেকে ওষুধসহ অন্যান্য যন্ত্রপাতি ও চিকিৎসা সামগ্রী প্রেরণ করা হবে।

এদিকে অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবিলায় প্রস্তুতিসহ পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণের জন্য উপকূলীয় ১৩ জেলায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শনি ও রোববারের (৯ ও ১০ নভেম্বর) ছুটি বাতিল করা হয়েছে। ছুটি বাতিল করে শুক্রবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে ১৩ জেলা প্রশাসকের (ডিসি) কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

যেসব জেলার সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে সেগুলো হলো- সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, পটুয়াখালী, ভোলা, বরগুনা, পিরোজপুর, নোয়াখালী, ফেনী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, খুলনা, কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম।

এমইউ/আরএস